অক্ষয়ের তামাশার কারণে বলিউড ছাড়তে হয়েছিলো এই নায়িকাকে

বিনোদন ডেস্ক
১ জুলাই ২০২০, বুধবার
প্রকাশিত: ০৫:২৭

অক্ষয়ের তামাশার কারণে বলিউড ছাড়তে হয়েছিলো এই নায়িকাকে

ভারতে চিরকালই ফর্সা গায়ের রঙের মেয়েদের কদর বেশি। আজও খবরের কাগজে বিয়ের পাত্রী খোঁজা হয় সুন্দরী ও গায়ের ফর্সা এই শর্ত দিয়ে। কালো মেয়ের নাকি বিয়ে হয় না, এমনকি সে নাকি ভাল জায়গায় চাকরিও পায়না, তা সে যতই শিক্ষিত হোক না কেন। এই ধারণাকেই তো আমরা চিরকাল বহন করে চলেছি। তবে এমন ধারণা যে শুধুই আম আদমির তা কিন্তু নয়। এই দলে রয়েছেন সেলিব্রিটিরাও। এবার গায়ের রং নিয়ে কী ভাবে বর্ণবিদ্বেষের শিকার হয়েছিলেন অভিনেত্রী শান্তিপ্রিয়া সেকথাই শেয়ার করেছেন তিনি।

১৯৯১ সালে সৌগন্ধ নামের একটি ছবিতে বলিউড অভিষেক করেছিলেন শান্তিপ্রিয়া। বিপরীতে ছিলেন অক্ষয় কুমার। সম্প্রতি নবভারত টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অক্ষয় কুমারের কাছ থেকে নিজের গায়ের রং নিয়ে তিনি কী শুনেছিলেন সেকথা জানিয়েছেন প্রাক্তন অভিনেত্রী। শান্তিপ্রিয়া জানিয়েছেন, অক্ষয় তার গায়ের রং নিয়ে সবার সামনে তার মস্করা করেছিলেন এবং সেটি তাকে ভয়ংকর কষ্ট দিয়েছিল। এর পরই মানসিক অবসাদের শিকার হয়েছিলেন অভিনেত্রী এবং বলিউড ছেড়ে দিয়েছিলেন তিনি।

গায়ের রং ফর্সা হওয়াটা বরাবরই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে বেঞ্চমার্ক। কিছুদিন আগে এ নিয়ে মুখ খুলেছিলেন বাঙালি অভিনেত্রী বিপাশা বসুও। তার অভিনয় দক্ষতা, সেক্স অ্যাপিল সবেরই নাকি কারণ বলিউড মনে করত তার কালো গায়ের রং।

শান্তিপ্রিয়াও একই কথা মনে করেন। শুধু অক্ষয় কুমার নন, বেশিরভাগ পুরুষের কাছেই এটা একটা সৌন্দর্যের মাপকাঠি বলেই মনে করেন তিনি। শান্তিপ্রিয়া জানিয়েছেন, অক্ষয়ের মস্করার পর নিজের গায়ের রং এমনকী নিজেকেই অপছন্দ করতে শুরু করেছিলেন তিনি। মাকেও প্রশ্ন করেছিলেন কেন তার গায়ের রং কালো। দক্ষিণের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তার পর কাজই ছেড়ে দিয়েছিলেন বলে দাবি করেছেন।

শান্তিপ্রিয়া বলেছেন, 'সৌগন্ধে কাজ করার পর আমি ও অক্ষয় ইক্কে পে ইক্কার শ্যুটিং শুরু করি। এক আধুনিক চরিত্র, আমাকে ছোট ড্রেস পরতে হত। আমি ড্রেসের সঙ্গে স্টকিংস পরতাম। আমার মনে আছে অক্ষয় কী ভাবে আমাকে নিয়ে মজা করতেন। ক্লাইম্যাক্সের শ্যুটিংয়ের সময় আমি স্টকিংস পরেই ছিলাম। আমার হাঁটুগুলো আরও কালোও দেখাচ্ছিল। অক্ষয় বাদেও সেখানে পঙ্কজ ধীর, চাঁদনি, পৃথ্বী, রাজ সিপ্পি, স্পটবয়, মেকআপ ম্যান থেকে প্রায় ১০০ জন ছিলেন সেখানে।

সবার সামনে অক্ষয় আমাকে বলেছিলেন শান্তিপ্রিয়ার পায়ে দুটো জায়গায় রক্ত জমাট বেঁধেছে। অনেকবার ওই কথাটা বলেছিলেন তিনি। আমি বুঝতে না পেরে জিগ্গেস করেছিলাম। তখন বলেছিলেন নিজের হাঁটুগুলো দেখো। আমি খুবই আঘাত পেয়েছিলাম এবং লজ্জা লেগেছিল। আমি খালি ভাবছিলাম কী ভাবে এ লোকের সামনে এই কথাটা বললেন অক্ষয়।'

যদিও এ নিয়ে অক্ষয় কুমারের উপর কোনও রাগ নেই শান্তিপ্রিয়ার। তার মতে, 'আমরা এখন সবাই পালটে গিয়েছি। অক্ষয় এখন খুবই ভালো বন্ধু। আমি ওকে এসব বলে আঘাত দিতে চাই না। আমি যখন কয়েক বছর পরে ফিরতে চেয়েছিলাম ইন্ডাস্ট্রিতে আমাকে অনেক সাহায্য করেছিলেন অক্ষয়। তখন আমাকে অনেক আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছিলেন তিনি। তবে এ ধরনের মজা-মস্করা অনেক মানুষের জীবন নষ্ট করে দিতে পারে বলেই আশঙ্কা আমার।'

ব্রেকিংনিউজ/অমৃ

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি