শিরোনাম:

বাংলামোটরে টেবিলে শিশুটির লাশ কাফনের কাপড়ে মোড়ানো

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৫ ডিসেম্বর ২০১৮, বুধবার
প্রকাশিত: 2:18 আপডেট: 2:20
বাংলামোটরে টেবিলে শিশুটির লাশ কাফনের কাপড়ে মোড়ানো

রাজধানীর বাংলামোটরের লিংক রোডের খোদেজা খাতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উল্টো দিকের ১৬ নম্বর বাড়ির ভেতরে ঢুকে এক শিশুর লাশ দেখতে পেয়েছে র‍্যাব ও পুলিশ। 

বুধবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে ওই বাসায় এক বাবা তাঁর দুই শিশুসন্তানকে জিম্মি করে রেখেছেন—এমন সংবাদে বাসাটি ঘিরে ফেলে পুলিশ। কিছুক্ষণ পরে র‍্যাব, পুলিশ, আনসার ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যেরা বাড়িটি ঘিরে ফেলেন। পুলিশ ও র‍্যাব ভেতরে ঢুকে ওই শিশুর লাশ দেখতে পেয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছে।

শিশুটির নাম নূর সাফায়েত। তাঁর বয়স আনুমানিক আড়াই বছর।

র‍্যাব-২–এর এসআই শহীদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, আমি বাড়ির ভেতরে ঢুকেছিলাম। সেখানে গিয়ে দেখি শিশুটির বাবা বসে আছেন, তার পাশে একজন হুজুর বসে আছেন। শিশুটিকে কাফনের কাপড়ে মোড়ানো একটি টেবিলের ওপর রাখা হয়েছে। শিশুটির বাবাকে কোনো সাহায্য লাগবে কি না—জানতে চাইলে তিনি বলেন, আপনাদের কারও সাহায্য লাগবে না। আপনারা কেন এসেছেন? আপনারা চলে যান। বেলা একটার দিকে আমি নিজে আজিমপুর কবরস্থানে গিয়ে আমার ছেলেকে দাফন করব।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বলেন, ওই বাসায় একটি শিশু মারা গেছে বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। শিশুটির বয়স আড়াই থেকে তিন বছর। শিশুর বাবা এর আগে মাদক গ্রহণের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন। জেলেও পাঠানো হয়।

নিহত শিশুটির ফুপু রোকেয়া বেগম ব্রেকিংনিউজকে জানান, আমি বিশ্বাস করি না আমার ভাই তার ছেলেকে মারতে পারে। ভাইয়ের ছেলের জন্ডিস হয়েছিল বলে আমরা জানতে পারি। আমার ভাই এমনিতেই নেশাগ্রস্ত ছিল। এ কারণে বাড়িতে তেমন কেউ থাকতে পারত না তার অত্যাচারে। 

বাংলামোটরের স্থানীয় বাসিন্দা আকিল জামান বলেন, কয়েক মাস আগে স্ত্রীকেও মারধর করেন কাজল। প্রতিবেশীরা এসে তাঁর স্ত্রীকে উদ্ধার করেন। নির্যাতন সইতে না পেরে স্ত্রী চলে গেছেন। বাচ্চা দুটো বাবার সঙ্গে ছিল।

ব্রেকিংনিউজ/টিটি/এসএ 

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2