শিরোনাম:

নিপুণ রায় ও রুমাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৪ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: 7:15 আপডেট: 7:47
নিপুণ রায় ও রুমাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করার সময় নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় করা আরেক মামলার বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী ও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সাধারণ সম্পাদক আরিফা সুলতানা রুমাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) ঢাকার মহানগর হাকিম তোফাজ্জল হোসেন এ আদেশ দেন।

আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) জালাল উদ্দিন সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি জানান, ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে পল্টন থানার নাশকতার আরেক মামলায় নিপুণসহ দুজনকে হাজির করে সাত দিন রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করেন। সে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়াসহ একাধিক আইনজীবী রিমান্ড বাতিলপূর্বক জামিনের আবেদন করেন। 

শুনানি শেষে বিচারক রিমান্ড ও জামিনের  আবেদন খারিজ করে একদিন জেলগেটে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদেশ দেন। 

নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়ি পোড়ানোর মামলায় গত ১৫ নভেম্বর রাত ৮টার দিকে কাকরাইলের নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে নিপুণ রায় এবং তার গাড়িতে থাকা সংগীতশিল্পী ও বিএনপি নেত্রী বেবী নাজনীনকে আটক করে ডিবি পুলিশ। কিছুক্ষণ পর বেবী নাজনীনকে ডিবি কার্যালয় থেকে ছেড়ে দেয়া হয়। পরদিন নিপুণ রায়কে আদালতে হাজির করলে তার বিরুদ্ধে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়।

গত ১৪ নভেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় পল্টন থানায় পৃথক ৩টি মামলা করা হয়। প্রতিটি মামলাতেই নিপুণ রায়কে আসামি করা হয়। এর পর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

অন্যদিকে আরিফা সুলতানা রুমাকে একই দিন হাইকোর্ট এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের সময় পুলিশের একটি পিকআপ ভ্যানসহ দুটি গাড়ি জ্বালিয়ে দেয়া হয়। এতে পুলিশের ৫ কর্মকর্তা, ২ জন আনসার সদস্যসহ ২৩ পুলিশ সদস্য আহত হন। 

উল্লেখ্য, সংঘর্ষের পর পরই তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় নিপুণ রায় চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘আমাদের নেতাকর্মীদের মধ্যে স্বৈরাচার সরকারের সন্ত্রাসবাহিনী ঢুকে পুলিশের ওপর বোতল নিক্ষেপ করেছে। সেই বোতল নিক্ষেপ করাকে কেন্দ্র করে আজকের এই সংঘর্ষ ঘটেছে। এটা সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ঘটানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাত্রদাহ থেকেই এই হামলা চালানো হয়েছে।’

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2