শিরোনাম:

ডিবি হাওরে লাল শাপলার টানে পর্যটকদের ভিড়

পরিবেশ-পর্যটন ডেস্ক
২৯ নভেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 5:08
ডিবি হাওরে লাল শাপলার টানে পর্যটকদের ভিড়

সিলেটের উত্তর-পূর্বে অবস্থিত জৈন্তাপুর উপজেলা প্রাকৃতিক ও খনিজ সম্পদে ভরপুর। সৌন্দর্যের লীলাভূমি মেঘালয়ের পাদদেশ ঝর্ণাবেষ্টিত ডিবির হাওর লাল শাপলার বিল নামে পরিচিতি। এখানের চারটি বিলে ডিবি বিল, ইয়াম বিল, হরফকাট ও কেন্দ্রীবিলের প্রায় ৯শ’ একর ভূমিতে প্রাকৃতিকভাবে লাল শাপলার জন্ম।

শীতের আগমণের সাথে সাথে প্রকৃতি যেন নিজ হাতে সাজিয়ে তুলে লাল শাপলার বিলগুলোকে। যেন ফুলে ফুলে সাজানো আসমান-জমিনে লাল গালিচায় বিছানো।

সূর্যোদয় থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত লাল শাপলার সৌন্দর্য্য দৃশ্যমান থাকে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে শাপলাগুলো নিথর হয় পড়ে। লাল শাপলার ফুটন্ত ফুল ডিবির হাওড়ের আশ-পাশের পরিবেশকে স্নিগ্ধ ও মনোমুগ্ধকর করে তুলে। এর অপরূপ সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে ঘন কুয়াশা ও শীত উপেক্ষা করে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ জেলা ও উপজেলা থেকে দল বেধে ছুটে আসা অগণিত পর্যটকদের ঢল নামে লাল শাপলার বিলে। বিলের লাল শাপলার ফুটন্ত ফুল যেন ভ্রমণ পিপাসু পর্যটকদের হাতছানি দিয়ে ডাকে। এর সাথে রয়েছে নানা প্রজাতির অতিথি পাখির কিছির মিছির সুর। মনে হয় যেন প্রকৃতি তার রূপের সঙ্গে নিজে বাধ্যযন্ত্রে সুরের ঝর্ণাধারা ছড়িয়ে দিয়েছে।

ডিবির হাওরের বিলগুলো বিগত ২০১৪ সালে স্থানীয় জাতীয় ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার কল্যাণে পর্যটকদের কাছে পরিচিতি লাভ করে। 

পর্যটকরা জানান, লাল শাপলার বিলের পরিবেশ অত্যন্ত মনোমুগ্ধকর। স্বাধীন জৈন্তিয়া রাজ্যের রাজা বিজয় সিংহের সমাধিস্থল, বিলের চার পাশে খাসিয়া জৈন্তিয়া পাহাড়ের অপরূপ সৌন্দর্য্য বিলটিকে আর্কষণীয় করে তুলেছে৷

পৌরাণিক ইতিহাস থেকে জানা যায়- ব্রিটিশ শাসিত ভারত উপমহাদেশের শেষ স্বাধীন রাজ্য ছিল জৈন্তাপুর। শ্রীহট্ট তথা ভারতবর্ষের অধিকাংশ এলাকা যখন মোগল সাম্রাজ্যভূক্ত ছিল, তখনও জৈন্তিয়া তার পৃথক ঐতিহ্য রক্ষা করে আসছিল। প্রায় ৩৫ বছর স্বাধীন রাজ্য হিসাবে পরিচালিত হয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয়গ্রন্থ মহাভারত এবং রামায়নে জৈন্তিয়া রাজ্যের কথা বিশেষ ভাবে উল্লেখ রয়েছে।

১৭৯০ খ্রিষ্টাব্দ রাজা বিজয় সিংহের শাসনকালে জৈন্তিয়ায় খনিজ সম্পদে ভরপুর ছিল, বর্তমানেও রয়েছে। রাজা বিজয় সিংহ ১৭৭৮ সালে সারিঘাট ঢুপি গ্রামে রামেশ্বর শিব মন্দির স্থাপন করেন। ১৮৩৫ সালের ১৬ মার্চ হ্যারি নামক ইংরেজ রাজেন্দ্র সিংহকে কৌশলে বন্দি করে মূল্যবান সম্পদ লুট করে নেয়। আর ডিবির হাওর রাজা বিজয় সিংহের স্মৃতি বিজড়িত সমাধিস্থলেই লাল শাপলার বিলগুলো অবস্থিত। বিলের পাড়ে বিজয় সিংহের সমাধি।

ব্রেকিংনিউজ/এমজি

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2