শিরোনাম:

‘সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সুশাসন প্রতিষ্ঠানে ভারসাম্য থাকা দরকার’


স্টাফ ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট

৯ নভেম্বর ২০১৮, শুক্রবার
প্রকাশিত: 8:20
‘সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সুশাসন প্রতিষ্ঠানে ভারসাম্য থাকা দরকার’

বাংলাদেশের সমসমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সুশাসন প্রতিষ্ঠানে ভারসাম্য থাকা দরকার। রাজনৈতিক দলগুলোর আচরণগত প্রস্তুতি থাকা দরকার। কিন্তু বর্তমানে এগুলোর কিছুই নেই। তাই স্বাধীনতার ৪৮ বছর পরও একটা সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব হচ্ছেনা। 

শুক্রবার (৯ নভেম্বর) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। বাসদের ৩৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও ১০১ তম রুশ বিপ্লব বার্ষিকী উপলক্ষে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশ শেষ সংগঠনের পক্ষ থেকে লাল পতাকা মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। 

কমরেড খালেকুজ্জামান ব‌লেন, ‘বর্তমান সরকার দেশের অর্থ ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছ। অর্থ ব্যবস্থাকে স্বেচ্ছাচারের জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কোটি কোটি টাকা চুরি হয়ে গেল সেগুলো ফেরানো গেলনা।’ 

তিনি বলেন, ‘দেশের বিচার ব্যবস্থার স্বেচ্ছাচারিতা লক্ষ করা যাচ্ছে। কোনো বিচার ২০ বছর ঝুলে থাকে। আবার কোনো বিচার ২০ দিনেও শেষ হয়ে যায়। এর মধ্যে আবার রয়েছে বিচারবিহর্ভুত হত্যাকাণ্ড। গত নয় মাসে সারা ৪৯৩ জনকে বন্দুক যুদ্ধের নামে হত্যা করা হয়েছে। আর নতুন করে শুরু হয়েছে গায়েবি মামলা,  আটক গ্রেফতার বাণিজ্য ও নির্যাতন।’

নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের সমালোচনা করে খালেকুজ্জামান বলেন, ‘ইভিএম ব্যবহারে প্রায় সব রাজনৈতিক দল নিষেধ করছিল। অথচ কোটি কোটি টাকা দিয়ে এই প্রযুক্তি কেনা হচ্ছে। সেখান থেকেও অর্থ লুট হচ্ছে।’ 

বাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাজেকুজ্জামান রতন বলেন, ‘স্বাধীনতা সংগ্রামে সমতা সামাজিক ন্যাবিচার, মানবিক মর্যাদার বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার লক্ষ ছিল। কিন্তু বুর্জুয়া শ্রেণির কারণে তা হচ্ছে না। স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর একদিকে যেমন ক্ষুধা দারিদ্রে মানুষ মরছে। অন্যদিকে কোটিপতির হারও বাড়ছে।  প্রতিবছর দেশে ৬ হাজার কোটিপতি বাড়ছে। অন্যদিকে বছরে হাজারেরও বেশি লোক জায়গা জমি হারাচ্ছে।’

গার্মেন্ট শ্রমিকদের জন্য সরকার কোনো উদ্যোগ নেয়নি উল্লেখ কর তিনি বলেন, ‘২০০৯ সালে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন ছিল ১৬০০ টাকার কিছু বেশি। আমরা দাবি করলাম ৫০০০ টাকা। ২০১০ সালে আমরা দাবি করলাম ৮০০০ টাকা, সরকার করল ৩০০০। ২০১৩ সালে ১৩০০০ দাবি করলাম। সরকার করল ৫৩০০। মালিক পক্ষ বলল তাদের প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু কারখানা বন্ধ না হয়ে আরো হু হু করে বাড়ছে। এখন গার্মেন্ট ৩২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রপ্তানি করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সরকার নাকি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে। তারা তো মুক্তিযুদ্ধের চেতনার উপর ভর করে আছেন। যদি মুক্তযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করতেন তাহলে সরকারী কর্মকর্তাদের বেতন আর বেসরকারী কর্মকর্তাদের বেতনের এতো পার্থক্য হতো না। শ্রম আইনে বলা আছে শ্রমিকদের নিয়োগ পত্র দিতে হবে। ৫০ লাখ পরিবহন শ্রমিকের নিয়েগপত্র নেই। এখন আবার তাদের মাথার ওপর খুনের খড়গ বসিয়েছেন। কিন্তু তাদের অধিকার নিয়ে কিছু বলছেন না।’

‘আড়াই কোটি মানুষ চরম দারিদ্র ঝুঁকি ও চার কোটি মানুষ দারিদ্র ঝুকিতে আছে। কিন্তু স্বাধানীতার ৪৭ বছর পর কী এই অবস্থা হওয়ার কথা ছিল?’ - প্রশ্ন রাখেন রাজেকুজ্জামান রতন। 

সমাবেশে নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে শনিবার সকাল ১১ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশের ঘোষণা দেওয়া হয়। 

ব্রেকিংনিউজ/এএইচএস/জেআই

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2