শিরোনাম:

সেনা থাকবে, তবে বিচারিক ক্ষমতা থাকবে না: সিইসি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৮ নভেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 10:05
সেনা থাকবে, তবে বিচারিক ক্ষমতা থাকবে না: সিইসি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের মাঠে সেনা মোতায়েন প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ‘নির্বাচন চলাকালে আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে বেসামরিক প্রশাসনকে যথা-প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের ‘এইড টু দ্য সিভিল পাওয়ার’ বিধানের অধীনে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন থাকবে।’

সিইসির ভাষ্য অনুযায়ী, ‘এবারও সেনা মোতায়েন হবে আগের মতোই। তবে সেনাবাহিনীর হাতে কোনও বিচারিক ক্ষমতা থাকবে না।’

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করে এ কথা জানান তিনি।

প্রতিযোগিতা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতা যেন প্রতিহিংসায় পরিণত না হয়- দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি এমন আহ্বান জানিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলোর মাঝে যদি কোনও মতবিরোধ থাকে তবে রাজনৈতিকভাবে আমি সেই মতবিরোধ মীমাংসার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

নির্বাচন প্রতিযোগিতা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে-  এমন আশা প্রকাশ করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য আমি সব রাজনৈতিক দলের প্রতি অনুরোধ জানাই। ভোট প্রতিযোগিতা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে বলে আমরা আশা করি।’

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৩ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। 

ঘোষিত তফসিলে সিইসি বলেন, ‘একাদশ জাতীয় নির্বাচনের মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ১৯ নভেম্বর, মনোনয়ন যাচাই-বাছায়ের শেষ তারিখ ২২ নভেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৯ নভেম্বর ও নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ২৩ ডিসেম্বর।’

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2