শিরোনাম:

এমপির কাণ্ড নিয়ে ভিডিও ভাইরাল

যশোর প্রতিনিধি
১২ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার
প্রকাশিত: 10:22 আপডেট: 10:23
এমপির কাণ্ড নিয়ে ভিডিও ভাইরাল

‘ফুলের মালা হাতে নিয়ে মাথা নত করে বারবার হাঁটু গেড়ে ওঠবস করছে ছাত্রীরা’- এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। ভিডিওটি যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও যশোর-২ (চৌগাছা-ঝিকরগাছা) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনিরের।

এনিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন এমপি মনিরুল ইসলাম মনির। বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) যশোরের চৌগাছা উপজেলার এবিসিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ফুল হাতে ছাত্রীদের ভিডিও এটি।

ভিডিওতে দেখা যায়, এমপি মনির ও আওয়ামী লীগের নেতারা একটি কক্ষে বসে আছেন। সেখানে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাও আছেন। এরই মধ্যে একদল ছাত্রী ফুলের মালা হাতে অতিথিদের সামনে দাঁড়াল। তারপর ‘ধন, ধান্য পুষ্পে ভরা, আমাদের এই বসুন্ধরা...’ গান বাজছে, আর তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে ফুল হাতে মাথা নত করে ছাত্রীরা অতিথিদের সামনে বারবার হাঁটু গেড়ে উঠছে আর বসছে। পাশ থেকে এক শিক্ষককে ছাত্রীদের এমন কিছু করার বিষয় শিখিয়েও দিতে দেখা যায়। তবে ছাত্রীদের সবার মুখ মলিন দেখা যায়। ভিডিওতেই স্পষ্ট, জোর করে তাদের দিয়ে এই কাজ করানো হচ্ছে।

সম্মান জানানো দোষের কিছু না। কিন্তু, অতিথির সামনে দাঁড় করিয়ে, কোমলমতী ছাত্রীদের এভাবে ওঠবস করানোকে ভালভাবে নেননি এলাকাবাসী। তাদের ভাষ্য, আয়োজকরা সুবিধা নিয়েছেন, এজন্য এমপির প্রতি এমনটি করতেই পারেন। কিন্তু, সচেতন মানুষ হিসেবে এমপি মনিরুল ইসলাম কেন বাচ্চাদের এই কাজ করতে দিলেন? শুরুতেই তো ছাত্রীদের তার থামিয়ে দেয়া উচিত ছিল।

নাজমুল হোসেন নামে এক ব্যক্তির ফেসবুক পেজে ভিডিওটি আপলোড করা হয়েছে। ভিডিওটি লক্ষাধিক বার ভিউ হয়েছে। ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়লে ফেসবুক ব্যবহারকারীরাও আয়োজক, এমপি এবং সেখানে উপস্থিত শিক্ষকদের ধিক্কার জানাচ্ছেন।

নাজমুল হোসেন জানান, এবিসিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানের ভিডিও এটি। প্রথমে এমপি সাহেব নিজেই আপলোড করেন। পরে তিনি ডিলেট করে দিয়েছেন বলেও দাবি করেছেন নাজমুল হোসেন।

আসাদুজ্জামান মুকুল নিজের ফেসবুকে লিখেছেন, ‘কী জঘন্য! শিক্ষকরা তো চামচামিতে গেছেই, এমপির রুচিও কতো জঘন্য! এই সার্কাসের মাধ্যমে আমাদের দেশপ্রেমকেই অপমান করা হয়েছে!’

মিজানুর রহমান দাবি জানিয়ে লেখেন, ‘কোথায় এই স্কুল? আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার অনুরোধ জানাই। এইভাবে ফুল দিয়ে বরণ করতে তো কোথাও দেখিনি! বারবার হাঁটু গেড়ে ওঠবস করে ফুল দেয়া, এটা কিসের নিয়ম? শিক্ষক ও স্থানীয়রা আবার এটি উপভোগও করছেন! ধিক্কার সবার প্রতি!’

এম এনামুল হক লেখেন, ‘শিক্ষায় জাতির মেরুদণ্ড। যদি শিক্ষক সব বলদ হন, তবে আমরা খুব শিগগিরই মেরুদণ্ডহীন জাতি পেতে যাচ্ছি!’

তবে ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওটিকে অনঅভিপ্রেত বলে উল্লেখ করেছেন ওই এমপি। এ ব্যাপারে তার এপিএস হুমায়ুন কবির স্বাক্ষরিত এক পত্রে দু:খ প্রকাশ করা হয়।

আইডিইবির যশোর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নুরুল ইসলাম বলেন, অতিথির প্রতি শ্রদ্ধা জানতেই এভাবে বরণ করা হয়েছে। মূলত গানটি কন্টিনিউ করার জন্য মেয়েরা ফুল হাতে, এভাবে উঠাবসা করেছে। এই ঘটনাটিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করা ঠিক হবে না।


ব্রেকিংনিউজ/ এসএ 

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2