শিরোনাম:

উড়িষ্যা-অন্ধ্র উপকূলে আছড়ে পড়ল ‘তিতলি’

ভারত ডেস্ক
১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 10:03 আপডেট: 2:08
উড়িষ্যা-অন্ধ্র উপকূলে আছড়ে পড়ল ‘তিতলি’
ছবি: আনন্দবাজার পত্রিকা

ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য অন্ধ্র প্রদেশ ও উড়িষ্যা উপকূলে প্রচণ্ড শক্তিতে আছড়ে পড়েছে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’। বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর)  স্থানীয় সময় ভোর পাঁচটা দিকে ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানে।

কলকাতাভিত্তিক দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা এ খবর দিয়েছে। খবরে বলা হয় আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরের উপরে ঘোরাফেরা করা গভীর নিম্নচাপটি শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। তড়িঘড়ি জরুরি বৈঠকে বসেছেন উড়িষ্যার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক। 

গঞ্জাম, পুরী, খুরদা, কেন্দ্রাপড়া ও জগৎসিংহপুর থেকে বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে আনার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার বন্ধ থাকবে গজপতি, গঞ্জাম, পুরী ও জগৎসিংহপুরের স্কুল-কলেজ।

প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে, উড়িষ্যার গোপালপুরে আছড়ে পড়ার সময় ঝড়ের গতি ছিল প্রতি ঘণ্টায় ১০২ কিলোমিটার। অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকাকুলামে এই গতিবেগ ছিল ১৪০- ১৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা।  

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছিল, উড়িষ্যার গোপালপুর এবং অন্ধ্রপ্রদেশের কলিঙ্গপত্তনমে ঘণ্টায় ১৪৫ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়ার কথা তিতলি-র। দফতরের কর্তা এইচ আর বিশ্বাসের কথায়, ‘‘আগামী ১৮ ঘণ্টায় আরও শক্তি বাড়াবে ওই ঘূর্ণিঝড়। কাল ভোরে উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমে সরে গোপালপুর ও কলিঙ্গপত্তনমের উপর দিয়ে উড়িষ্যা ও অন্ধ্রপ্রদেশ পেরুবে। এর পরে ফের একই জায়গায় ঘুরে এসে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের দিকে সরে যাবে। সেখানে পৌঁছে ধীরে ধীরে শক্তি কমবে ঝড়ের।

তিতলির জেরে আগামীকাল গঞ্জাম, গজপতি, পুরী, জগৎসিংহপুর, কেন্দ্রাপড়া, খুরদা, নয়াগড়, কটক, জাজপুর, ভদ্রক ও বালেশ্বরে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। আজও অল্প বৃষ্টি হয়েছে  উড়িষ্যার উপকূলবর্তী কিছু এলাকায়। 

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, বুধবার রাত থেকে দক্ষিণ  উড়িষ্যা উপকূল বরাবর ঘণ্টায় ১৪০-১৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বইবে। তা ঘণ্টায় ১৬৫ কিলোমিটারও হতে পারে। দক্ষিণ উপকূলে ৭০-৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আশঙ্কা রয়েছে। সমুদ্র অশান্ত থাকায় শুক্রবার পর্যন্ত ওড়িশা উপকূল এবং মধ্য ও উত্তর বঙ্গোপসাগর সংলগ্ন এলাকার মৎস্যজীবীদের সাবধান করা হয়েছে।

ভারী বৃষ্টিতে বন্যার আশঙ্কায়  উড়িষ্যার প্রতিটি জেলায় সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন। 

মুখ্য সচিব এ পি পাধি জানিয়েছেন, দুর্যোগে এক জনেরও যাতে প্রাণহানি না হয়, তার প্রস্তুতি নিচ্ছে রাজ্য। বিশেষ ত্রাণ কমিশনার বিপি শেট্টি জানিয়েছেন, প্রয়োজনে বিপজ্জনক ও নিচু এলাকাগুলি থেকে বাসিন্দাদের সরানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। উদ্ধারকাজে সহায়তার জন্য প্রস্তুত ৩০০টি মোটর বোট। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ৬টি দল,  উড়িষ্যার র‌্যাপিড অ্যাকশন ফোর্সের ১১টি দল ও দমকল বাহিনী তৈরি রাখা হয়েছে। বিশাখাপত্তমন থেকে নৌবাহিনীর বিশেষ ডুবুরি দল চিল্কায় গিয়েছে। চিকিৎসকদের একটি দলও প্রস্তুত রাখা হয়েছে সেখানে।

রেল জানায়, হাওড়া ও খড়্গপুরের দিক থেকে আসা আপ ট্রেনগুলিকে আজ বিকেল ৫টার পরে ভদ্রক থেকে অন্য দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে। হায়দরাবাদ-বিশাখাপত্তনমের দিক থেকে আসা উত্তরমুখী ট্রেনগুলিকে সাড়ে ছ’টার পরে বিশাখাপত্তনমের দুভভড়া থেকে অন্য দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া হয়। পুরী থেকে পুরী-জোধপুর এক্সপ্রেস প্রায় ৫ ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ে। পুরী-আমদাবাদ এক্সপ্রেস ছেড়েছে ৩ ঘণ্টা দেরিতে। পুরী-হাওড়া গরিব রথ এক্সপ্রেস আজ রাতের বদলে কাল ভোর ৫টায় ছাড়বে। বুধবার রাতে কলকাতা থেকে ভুবনেশ্বরের উড়ান বাতিল করেছে ইন্ডিগো।

ব্রেকিংনিউজ/এনকে

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2