শিরোনাম:

২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলা

খালেদা জিয়াকেও বিচারের আওতায় আনার দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার
প্রকাশিত: 6:59
খালেদা জিয়াকেও বিচারের আওতায় আনার দাবি
ফাইল ছবি

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।  তিনি বলেন, ২০০৪ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। বাবর ছিলেন প্রতিমন্ত্রী। যে মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী থাকেনা সেই মন্ত্রণালয় থাকে প্রধানমন্ত্রীর অধীনে। তাই তাকেও বিচারের আওতায় আনতে হবে। তাই আমরা খালেদা জিয়ারও বিচার দাবি করছি।’ 

বুধবার (১০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে রায় পরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলন থেকে এ দাবি করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানেরও ফাঁসি দাবি করেছেন। তিনি বলেন, ‘এ রায়ে পুরোপুরি ভাবে সন্তুষ্ট হতে পারি না। তবুও আদালতকে আমরা ধন্যবাদ জানাই। অন্তত একটা বিচার তো হয়েছে! বিএনপি আমলে গড়ে ওঠা বিচারহীনতার যে প্রবণতা ছিলো সেটা তো হয়নি। তাই আদালতকে অবশ্যই ধন্যবাদ দিতেই পারি। আমি সন্তুষ্ট হতাম যদি ২১ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড, প্লানার, বিকল্প পাওয়ার হাউজ হাওয়া ভবনের কর্ণধার তারেক রহমানের সর্বোচ্চ শাস্তি হতো। আমরা এ মুহূর্তে তার ফাঁসি দাবি করছি। তারেক রহমানের শাস্তি দাবি করছি। কী নৃসংসত! মুফতি হান্নান ওয়ান ছিক্সটিফোরের জবানবন্দিতে স্বীকার করেছিলো, তারেক রহমানের অনুমতি নেই অপারেশন শুরু হয়েছিল।’

রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘এটা সরকারের ব্যাপার। আমি আওয়ামী লীগের জেনারেল সেক্রেটারি হিসেবে সরকারের কাছে উচ্চ আদালতে আপিল করার জন্য দাবি জানাচ্ছি। ২১ আগস্টের ঘটনা ছিল রাষ্ট্রীয় মদদে সরকারি জঙ্গি হামলা। ঐ সময়ে দায়িত্বরত সেনা গেয়েন্দা সংস্থার প্রধানের ভাষ্য থেকে একথা পরিস্কার খালেদা জিয়া এ হামলা সম্পর্কে অবগত ছিলেন। ২১ আগস্টের গ্রেনড হামলা ছিল  রাষ্ট্রীয় পাপ। আমরা খালেদা জিয়ারও বিচার দাবি করছি।’

আওয়ামী লীগ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, আহমদ হোসেন, সংস্কৃতি  বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপসহ অনেকে।

ব্রেকিংনিউজ/ আরএইচ/জেআই

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2