শিরোনাম:

​নিহতদের স্বজন ও আহতরা রায়ে অসন্তুষ্ট

স্টাফ করেসপডেন্ট
১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার
প্রকাশিত: 1:06 আপডেট: 5:01
​নিহতদের স্বজন ও আহতরা রায়ে অসন্তুষ্ট

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে অসন্তুষ্ট প্রকাশ করেছে ২১ আগস্ট হামলায় আহত ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংগঠন ‘২১ আগস্ট বাংলাদেশ’।

রায় উপলক্ষে বুধবার (১০ অক্টোবর) সকাল থেকেই তারা বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে অবস্থান নিয়েছিলেন। রায় ঘোষণার পর তারা সাংবাদিকদের কাছে প্রতিক্রিয়া জানান।

তারা জানান, এই রায়ে তারা অসন্তুষ্ট। হামলার অনেক মাস্টারমাইন্ডকে ফাঁসি দেয়া হয়নি। ন্যায় বিচারের জন্য উচ্চ আদালতে যাবেন বলেও তারা জানান।

রায়ের প্রতিক্রিয়ার যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, ‘২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলা বিএনপি-জামায়াতে দলীয় সিদ্ধান্ত এবং বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় এই হামলা হয়েছে। কোনো একক ব্যক্তির পক্ষে এই হামলা সম্ভব নয়। এটার জন্য যদি তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ফাঁসি হয়। জঙ্গি সংগঠন হিসেবে বিএনপিকেও রাজনীতিতে নিষিদ্ধ করতে হবে।’
  
‘২১ আগস্ট বাংলাদেশ’ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. নাজিমুদ্দিন নাজমুল তার প্রতিক্রিয়ার বলেন, ‘২১ আগস্ট হামলায় আহত ও শহীদ পরিবারের সদস্যরা সন্তুষ্ট নয়। আমরা ২১ আগস্ট হামলার ষড়যন্ত্রকারী ও মূল হোতা হিসেবে তারেক জিয়ার যাবজ্জীবন নয়, ফাঁসি দাবি করেছিলাম। আমার এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালত যাবো।’

রায় শোনার পর কান্না ভেঙে পরেন ২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলার শিকার নারী নেত্রী রাশিদা আক্তার রোমা। তিনি কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, ‘এই রায়ের বিরুদ্ধে আমরা উচ্চ আদালতে যাবে।’

২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলা আহতদের একজন অ্যাডভোকেট কাজী শাহানা ইয়াসমিন  বলেন, ‘আদালতের রায়ের প্রতি সম্মান জানিয়ে বলছি আদালতে সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ নেই। হস্তক্ষেপ থাকলে এরকম রায় হতো না। আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবো। আমরা তারেক জিয়ার ফাঁসি চাই।’

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও গ্রেনেট হামলার শিকার আজিজুর রহমান বাচ্চু বলেন, ‘আমরা আশা করেছিলাম গ্রেনেট হামলার সঙ্গে জড়িত ও চক্রান্তকারীদের ফাঁসির রায় হবে। কিন্ত তারেক জিয়ার ফাঁসি না হওয়ার আমরা হতাশ হয়েছি। আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালত যাবো।’

কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা বলেন, ‘তারেক জিয়ারসহ সকল হামলা ও ষড়যন্ত্রকারীদের ফাঁসি হবে বলে আশা করেছিলাম। আমরা এই সন্তুষ্ট নয়। আমরাও রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালত যাবো।’

ব্রেকিংনিউজ/ আরএইচ/ এসএ 

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2