শিরোনাম:

অফিসে মেনে চলুন কিছু আদবকেতা

লাইফস্টাইল ডেস্ক
৪ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 9:39
অফিসে মেনে চলুন কিছু আদবকেতা

মানুষ সামাজিক জীব। সামাজিক বলেই তাকে যা ইচ্ছা তা করলে চলেনা, মেনে চলতে হয় কিছু নিয়ম কানুন। আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে মনের ভুলেও অনেক আচরণ করি যা ঠিক নয়। এতে করে আপনি যাদের সাথে মিশছেন তারা হয়তো ঠিকই বিরক্ত হচ্ছে বা আপনাকে নিয়ে কথা বলছে। পেশাদার জীবনে কিছু সতর্কতা অবলম্বন খুবই জরুরী।  

সবার কাছে আমরা যাতে হাস্যকর কিংবা বিরক্তিকর হয়ে না উঠি তাতে মেনে চলতে হবে কিছু আদবকেতা। এতে করে আপনি বরং প্রশংসিতই হবেন, জীবনও হবে সুখময়। চলুন দেখি নিই কিছু আদবকেতা যা অফিসে আমাদের সবার মেনে চলা উচিৎ। 

১.  প্রথমেই নিজের আচরণ সংযত করুন।

২.  কোনো বিষয়ে কারো সাথে মতবিরোধ হলেও উত্তেজিত হওয়া যাবেনা। 

৩. যে অফিসে চাকরি করেন তার সব ধরনের শৃংখলা মেনে চলুন।  

৪. অফিসের পিয়ন থেকে শুরু করে বস পর্যন্ত সবার সঙ্গে মানিয়ে চলতে হবে।

৫.  অফিসে আপনার ফোন এলে কখনোই সবার ভেতরে চিৎকার করে কথা বলবেন না।  

৬. ইদানীং সবাইকে নানা কারণেই টিস্যু ব্যবহার করতে হয়। টিস্যু ব্যবহার করে নির্দিষ্ট বিনে রাখুন। 

৭. কখনোই ডেস্কে বসে খাবেননা, বিশেষ করে পোলাও বিরিয়ানির মতো খাবার যেগুলো বেশি ঘ্রাণ থাকে। 

৮. অফিস সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ কাজের জন্য, রাজনীতির জায়গা না। 

৯. অফিসের ভেতরে বা বাইরে গ্রুপিং করলে নিজের ক্যারিয়ারেরই বেশি ক্ষতি হতে পারে। 

১০. প্রতিষ্ঠান কর্মীর চেয়ে বড়, এমন কিছু করা যাবেনা যা প্রতিষ্ঠানের সুনাম ক্ষুন্ন করে। 

১১. পোশাকের বিষয়টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এমন পোষাক পরে যাবেন যা সবার সাথে মানান সই। আর অফিসের ড্রেস কোড থাকলে তা মেনে চলুন। 

১২. আপনার মাধ্যমেই অন্যরা আপনার প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে জানবে। প্রতিটি কর্মীই সেই প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। 

১৩. অন্যের কথা মনযোগ দিয়ে শোনার মানসিকতা থাকতে হবে। 

১৪. অন্যের সিদ্ধান্তের গুরুত্ব দিতে হবে।

১৫. আপনার ব্যবহৃত ডেস্ক পরিষ্কার রাখুন। 

১৬. ভালো কর্মী কখনো দেরি করে মিটিং-এ আসেনা 

১৭.  অসুস্থ হলে ছুটি উর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে বলে ছুটি নিন। 

১৮. ওয়াশরুম ব্যবহারে অবশ্যই সচেতন থাকতে হবে। এমন কিছু করা যাবেনা যা দৃষ্টিকটু। ওয়াশরুমে বেশি পানি ব্যবহার করুন। 

১৯.  হাসিটা যেন সঙ্গেই থাকে, এটা খুবই জরুরি।

২০. পরিশেষে মনে রাখবেন, আপনি যত বড় বসই হননা কেন, মনে রাখবেন অফিসের পিওন কিন্তু আপনার কাজের লোক নয়, কলিগ। তারও সম্মান আছে, তাকেও কিছু বলার সময় এটা মাথায় রাখতে হবে। 

ব্রেকিংনিউজ/জেআই

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2