শিরোনাম:

নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান গণপূর্তমন্ত্রীর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট. চট্টগ্রাম
৪ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 6:59
নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান গণপূর্তমন্ত্রীর

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য,গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশরাফ হোসেন এমপি বলেছেন, ‘ঐক্যের বিকল্প নেই,তাই সকল নেতা কর্মীদের ঐক্য থাকতে হবে। আমাদের ঐক্য নষ্ট করার জন্য আমাদের দলে কিছু দুষ্কৃতিকারী ঢুকেছে তারা আজ বিভিন্ন বিশৃংঙ্খলা সৃষ্টি করছে। এ ব্যাপরে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।’

তিনি বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ফটিকছড়ির নাজিরহাট ঝংকার মোড়ে উপজেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত পথসভায় এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিকেই ফটিকছড়ি থেকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। আমিও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট এ অনুরোধটাই করব।’ তিনি এর আগে আজাদীবাজারে আয়োজিত পথসভায় যোগদান করেন। 

সেখানে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা হুসাইন মোহাম্মদ আবু তৈয়বের অনুসরীরা তৈয়বের নামে স্লোগান দিতে থাকে। মন্ত্রী বারণ করা সত্ত্বেও স্লোগান দিতে থাকলে মন্ত্রী ক্ষিপ্ত হয়ে বক্তব্য না দিয়ে সভা ত্যাগ করেন। এরপর তিনি নানুপুর ওবাইদিয়া মাদ্রাসা পরিদর্শন করেন। 
এদিকে নাজিরহাট ঝংকার মোড়ে পথসভায় মন্ত্রী আসার পুর্বে দুস্কৃতিকারীরা মঞ্চ ভাংচুর করে।

ফটিকছড়ি থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মাহাবুবের মদদে সন্ত্রাসীরা এ তান্ডব চালিয়েছে, সভামঞ্চে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নাজিম উদ্দনি মুহুরীর এমন বক্তব্য প্রদানের সাথে সাথে নেতাকর্মীরা পুলিশের দিকে তেড়ে যায়। পুলিশ ও নেতাকর্মীরা মুখোমুখী অবস্থান নিলে উপস্থিত নেতৃবৃন্দের হত্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। 

এ প্রসঙ্গে পথসভায় গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশরাফ হোসেন,এমপি বলেছেন, ‘আজাদীবাজার পথসভায় যারা বিশৃংঙ্খলা করতে চেয়েছে তারা আমাদের দলের নয়। কারা করেছে আমার জানা আছে, ছাড় দেওয়া হবেনা। আমি এ সভা থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে তাদের শাস্তি দাবী করছি।’ 

এদিকে আজাদীবাজার থেকে ফেরার পর পথে গাড়িবহরে ইট পাটকেলও নিক্ষেপ করে বলে জানা গেছে। এসময় পুরো ফটিকছড়িতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। 

নাজিরহাট পথসভা শেষে ফটিকছড়ি পৌরসভার বিবিরহাট, ভূজপুর কাজিরহাট ও হেঁয়াকো বাজারে পথসভায় অংশগ্রহন করেন। এ সময় পথসভায় চট্টগ্রাম উত্তরজেলা আওয়ামী লীগের লীগের  সাধারণ সম্পাদক এম সালাম,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এটি এম পেয়ারুল ইসলাম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা মোহাম্মদ শাহজাহান, সৈয়দ মোহাম্মদ বাকের, খাদিজাতুল আনোয়ার সানি, মুজিবুল হক চৌধুরী, নাজিম উদ্দিন মুহুরীরসহ জেলা-উপজেলা পর্যাযায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ব্রেকিংনিউজ/জেআই

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2