শিরোনাম:

আক্রমণাত্মক আচরণ বাড়াচ্ছে স্যাটেলাইট!

লাইফস্টাইল ডেস্ক
২ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: 9:29 আপডেট: 12:01
আক্রমণাত্মক আচরণ বাড়াচ্ছে স্যাটেলাইট!

টিভি ও চলচ্চিত্রে সহিংসতার আধিক্য এবং উচ্চ স্তরের পারিবারিক দ্বন্দ্ব শিশুদের আক্রমণাত্মক আচরণে ঝুঁকির মুখে রাখে বলে অভিভাবকদের এই বিষয়গুলি পর্যবেক্ষণে রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলছেন গবেষকরা।

তারা পরামর্শ দিয়েছে যে, বাচ্চারা স্যাটেলাইটে কী ধরনের মিডিয়া সামগ্রী দেখছে তার উপর অভিভাবকদের কড়া নজর রাখা উচিত।

জার্নাল এগ্রেসিভ বিহেভিওর এ প্রকাশিত একটি অনলাইন গবেষণায় দেখা গেছে, পিতামাতার নজরদারি আক্রমণাত্মক আচরণের বিরুদ্ধে সুরক্ষা করতে সহায়তা করে।

যুক্তরাষ্ট্রে ওরেগন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও এই গবেষণার প্রধান লেখক আতিক খুরনা বলেন, "এটি বেশ মজার ব্যাপার যে,  সহিংসতা, পারিবারিক দ্বন্দ্ব, আবেগপ্রবণতা, এবং সেন্সেশন-অনুসন্ধানী বয়োঃসন্ধিকালীন ছেলেমেয়েদের ক্ষেত্রে পিতামাতার নজরদারি আগ্রাসী এ সকল প্রবণতাগুলির বিরুদ্ধে একটি ‘সুরক্ষা প্রভাব’ সরবরাহ করে।"

১৪ থেকে ১৭ বছর বয়সী প্রায় দুই হাজার কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে অনলাইন জরিপের উপর ভিত্তি করে এমন ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

আগ্রাসনের প্রকোপ অনুধাবণ করতে অংশগ্রহণকারীদের জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে, কী ধরনের অনুষ্ঠান তারা দেখেছে, কতবার তারা প্রত্যেকের সাথে দেখা করেছে, তারা সম্প্রতি কোন শারীরিক যুদ্ধে জড়িত ছিল কিনা বা মুখোমুখি হয়রানি ও সাইবারগুজব সম্পর্কে।

পারিবারিক দ্বন্দ্ব পরিমাপ করার জন্য জরিপকৃত কিশোর-কিশোরদের জিজ্ঞাসা করা হয়, তাদের পরিবারের সদস্যরা সমালোচনা করে কিনা, একে অপরকে আঘাত করে কিনা, অভিশাপ দেয় কিনা, বিতর্ক করে কিনা এবং রাগে কোনকিছু ভাঙচুর করে কিনা।

অন্যান্য প্রশ্নগুলি করা হয় স্যাটেলাইট ব্যবহারে পিতামাতার নিবিড় তত্ত্বাবধানে, যেখানে সহিংসতা এবং প্রাপ্তবয়স্কদের বিষয় নিষিদ্ধ ও বাধাগ্রস্ত।

গবেষকরা দেখেছেন যে বয়ঃসন্ধিকালীন অন্যান্য বিষয়গুলির ঝুঁকির চেয়ে কেবলমাত্র ‘মিডিয়া সহিংসতা’ আগ্রাসনের জন্য একটি শক্তিশালী ঝুঁকিপূর্ণ প্রভাবক। 

খুরানা বলেন, "পরিবারের সংঘাত ও আবেগহীনতা বেশি সন্দেহজনক বা উদ্বেগজনক নয়, তবে অন্যান্য বিষয়গুলির তুলনায় এটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ।"

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2