শিরোনাম:

মায়েদের বুকের দুধে গাঁজার উপাদান ‘টিএইচসি’!

স্বাস্থ্য ডেস্ক
৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, রবিবার
প্রকাশিত: 10:08
মায়েদের বুকের দুধে গাঁজার উপাদান ‘টিএইচসি’!

সম্প্রতি এক গবেষণায় গাঁজা সেবনকারী মায়েদের বুকের দুধে গাঁজার প্রধান উপাদান ‘টিএইচসি’-র উপস্থিতি পেয়েছেন। এ উপাদানটি মানব মস্তিষ্কে পরিবর্তন আনায় বেশ সক্রিয় ভূমিকা রাখে।

গত সোমবার শিশু চিকিৎসকদের একটি জার্নালে এই গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়।

সান দিয়েগো'র ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণাগারে পরীক্ষা করে গবেষকরা সেবনকারী মায়েদের বুকের দুধে স্বল্প মাত্রায় টিএইচসি পেয়েছেন৷ গবেষণায় আরও দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের অনেক নারী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার সময় এবং প্রসবের পরেও গাঁজা সেবন করেন৷

বিশেষজ্ঞরা মতে, টিএইচসি উপাদানটিতে এমন একটি রাসায়নিক পদার্থ আছে, যা মস্তিষ্কের বিকাশে বাধা সৃষ্টি করে, পাশাপাশি মস্তিষ্কের ক্ষতিসাধন করে। যদিও এই গবেষণায় বেশ কিছু ফাঁক রয়েছে৷

ছোট পরিসরে করা এক গবেষণায় ৫০ জন নারী অংশগ্রহণ করেছিলেন, যারা প্রথমে গাঁজা সেবন করেছেন এবং পরে গবেষকরা তাদের কাছ থেকে বুকের দুধের নমুনা সংগ্রহ করেন।

গবেষণা প্রতিবেদকরা বলছেন, গর্ভাবস্থায় এবং প্রসবের পরে বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় গাঁজা সেবন করলে তা শিশুর মস্তিষ্ক বিকাশকে বাধাগ্রস্ত করে। 

যদিও এ বিষয়ে মতভেদ রয়েছে। ৮০'র দশকে এই ধরনের দুটি পরীক্ষায় একটি পরীক্ষায় গাঁজা সেবনকারী মায়েদের সন্তানদের মস্তিষ্কের বিকাশ পরীক্ষা করে বিশেষ কোনো অস্বাভাবিকতা লক্ষ্য করা যায়নি। অন্যদিকে অপর পরীক্ষায় মস্তিষ্ক বিকাশে কিছুটা ধীর গতি লক্ষ করা যায়।

বর্তমান গবেষণার গবেষকরা বলছেন, আগের তুলনায় গাঁজার সহজলভ্যতার দরুন গ্রহণের মাত্রাও বেড়েছে আর এ কারণে তা শিশুদের মস্তিষ্ক বিকাশে বেশ প্রভাব ফেলছে৷ 

তবে শিশু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শিশু গর্ভে আসার পর এবং ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর মায়েদের অবসাদ হয়, আর তা কাটিয়ে উঠতে অনেকেই গাঁজা সেবন করেন৷ যেহেতু স্তন্যপান শিশুদের বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে, তাই মা গাঁজা সেবন করে থাকলেও শিশুকে বুকের দুধ খাওয়াতে হবে৷

তারা এই সমস্যা সমাধান হিসেবে মায়েদের কাউন্সেলিং করানোর কথা বলেছেন৷

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2