শিরোনাম:

​‘কলকাতার সাংবাদিকরা বাংলাদেশের মতো দলবাজ না’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, চট্টগ্রাম
২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 10:44 আপডেট: 10:51
​‘কলকাতার সাংবাদিকরা বাংলাদেশের মতো দলবাজ না’

‘বাংলাদেশের মিডিয়া মালিক এবং কর্মীদের দায়িত্ব জ্ঞানহীন আচরণের জন্যই শাসক দল মিডিয়ার কণ্ঠ চেপে ধরার সুযোগ পাচ্ছে। এ ছাড়া গণতন্ত্র এবং বিচার বিভাগ প্রাতিষ্ঠানিক রুপ পায়নি বলেই মিডিয়ার উপর বিভিন্ন ধরণের অশনি সংকেত চেপে আসছে।’ 

বৃহস্পতিবার ( ২৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে চট্টগ্রাম রিপোটার্স ফোরাম আয়োজিত ‘দুই বাংলার সাংবাদিকতা’ শিরোনামে আলাপচারিতা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার এসিসট্যান্ট এডিটর অনমিত্র চট্টোপাধ্যায়। 

চট্টগ্রাম রিপোটার্স ফোরামের সভাপতি কাজী আবুল মনসুরের সভাপতিত্ব উক্ত আলাপচারিতা অনুষ্ঠানে দুই বাংলার গণমাধ্যমের বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোচনা করতে গিয়ে অনমিত্র চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘মিডিয়া হাউজগুলোসহ সংশ্লিষ্ট গণমাধ্যম কর্মীদের আরো দায়িত্বশীল হতে হবে। পাঠকদের কাছে বিশ্বাস যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। কেননা পাঠকের কাছে যদি মিডিয়া কর্মীদের বিশ্বাস যোগ্যতা হারিয়ে যায় তাহলে গণমাধ্যমে আর কিছু থাকেনা।’ 

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের এক শ্রেনীর সাংবাদিকদের মধ্যে রাজনৈতিক চর্চা রয়েছে যা গণমাধ্যমের জন্য শুভ নয়। সাংবাদিকদের বিভক্তির কারণে শাসকদল সব সময় মিডিয়াকে চেপে ধরতে সুযোগ পায়।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘ভারতের বিশেষ করে কলকতায় সাংবাদিকদের মধ্যে রাজনৈতিক দলবাজি নেই। সেখানে গণতন্ত্র এবং বিচার বিভাগ প্রাতিষ্ঠানিক রুপ পেয়েছে বলেই গণমাধ্যম মত প্রকাশে স্বাধীন।’ 

আনন্দবাজার পত্রিকার এ সাংবাদিক বলেন, ‘ভারত এবং বাংলাদেশের মিডিয়া মালিকদের লক্ষ্য ভিন্ন। ভারতের গণমাধ্যমে বিনিয়োগকারী মালিকরা পুরোটাই পেশাদার। যেটা বাংলাদেশে এখনো হয়ে উঠেনি। একজন মালিক মিডিয়ার পাশাপাশি অন্য ব্যবসায় জড়িত থাকলে তখন অন্যের দোষ ত্রুটি তুলে ধরতে পারেনা। মালিকরা বাস্তবিক পক্ষে মিডিয়া বান্ধব হলে বাংলাদেশের গণমাধ্যমের আরো উন্নতি হবে।’ 

আলাপচারিতা অনুষ্ঠানে উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দুই বাংলা নয় সারা পৃথিবীর গণমাধ্যমগুলোর কাছে চ্যালেঞ্জ একই।’

সংবাদ মাধ্যম বদলে গেছে উল্লেখ করে অনমিত্র বলেন, ‘অনলাইন  মিডিয়ার কারণে এখনকার সময়ে প্রিন্ট মিডিয়াগুলো চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। সংবাদের প্রচার ধরন,পরিবেশন সকল কিছুতেই পরিবর্তন এসেছে। অনলাইন নিউজ পোর্টাল আসাতে পাঠকরা সব ধরনের  নিউজ মুহুর্তেই পাচ্ছে। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং স্মার্ট ফোনের কারণে তা আরো সহজতর হয়েছে। এ কারনে বর্তমানে টেলিভিশন চ্যানেলগুলোও পাশাপাশি অনলাইন নিয়ে ভাবতে শুরু করেছে।’

মানুষের খবর পড়ার অভ্যাসে পরিবর্তন এসেছে উল্লেখ করে অনমিত্র বলেন, ‘অনলাইনের দাপটে আগামীতে প্রিন্ট মিডিয়া অস্তিত্ব সংকটে পড়বে।’ 

দুই বাংলার সাংবাদিকতা নিয়ে আলাপচারিতা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম রিপোটার্স ফোরামের সিনিয়র সহ সভাপতি নিরুপম দাশ গুপ্ত, সাধারন সম্পাদক আলিউর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আবদুল্লাহ, অর্থ সম্পাদক আয়ুব আলী, ক্রীড়া সম্পাদক লোকমান চৌধুরী, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সরওয়ার আমিন বাবু, নির্বাহী সদস্য শামসুল হুদা মিন্টু, আবুল হাসনাত প্রমুখ।


ব্রেকিংনিউজ/জেএম/জেআই 

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2