শিরোনাম:

প্রসঙ্গ হৃদরোগীদের এসপিরিন সেবন

স্বাস্থ্য ডেস্ক
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: 3:30
প্রসঙ্গ হৃদরোগীদের এসপিরিন সেবন

প্রায় সকলেই জানেন যে নিয়মিত এসপিরিন গ্রহণ করলে তা হৃৎপিণ্ডকে সুরক্ষা দেয়। তাই হৃদরোগের চিকিৎসায় রোগীকে এসপিরিন গ্রহণ করতে বলা হয়। কিন্তু সত্যি কথা বলতে কি, শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেশি থাকলে দৈনিক এসপিরিন গ্রহণ হার্ট অ্যাটাক থেকে সুরক্ষা দিতে পারে না। ইউনিভার্সিটি অব মেডিল্যান্ড স্কুল অব মেডিসিনের এক গবেষণা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

গবেষকরা ৬৩ জন লোকের ওপর এক গবেষণা চালান, যাদের হৃদরোগ ছিল এবং যারা হৃদরোগের জন্য উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। এদের সবাইকে কমপক্ষে ৩০ দিন এসপিরিন গ্রহণ করতে দেওয়া হয়। ওষুধটি ৬০ শতাংশ লোকের ওপর কাজ করেনি, যাদের কোলেস্টেরলের মাত্রা ২২০-এর বেশি ছিল। কিন্তু যাদের কোলেস্টেরলের মাত্রা ১৮০-এর কম ছিল, তাদের ৮০ শতাংশের ওপর ওষুধটি চমৎকার কাজ করে।

এটা স্পষ্ট নয়, যেসব লোকের কোলেস্টেরল বেশি, এসপিরিন কেন সেসব লোকের ওপর সামান্য প্রভাব ফেলে বা কোনো প্রভাবই ফেলে না। তবে গবেষণায় দেখা গেছে, উচ্চ মাত্রার কোলেস্টেরলের সঙ্গে রক্ত জমাট বাঁধার প্রবণতা বৃদ্ধির একটা সম্পর্ক রয়েছে।

যদি আপনি হৃৎপিণ্ডকে রক্ষা করার জন্য এসপিরিন গ্রহণ করেন এবং আপনার যদি উচ্চ মাত্রার কোলেস্টেরল থাকে বা আপনি জানেন না আপনার মাত্রা কম, তাহলে নিচের পরামর্শ গ্রহণ করবেন।

আপনি নিয়মিত আপনার চিকিৎসককে দিয়ে কোলেস্টেরলের মাত্রা পরীক্ষা করবেন, যে পর্যন্ত না আপনার কোলেস্টেরলের মাত্রা ১৮০-এর কম হয়। কোলেস্টেরলের মাত্রা কম থাকলে এসপিরিন গ্রহণে সুফল পাবেন। আপনি হৃদরোগের জন্য উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ হলে তবে আপনার কোলেস্টেরল কমানোর ওষুধ গ্রহণের প্রয়োজন হতে পারে। (সংগৃহীত)

ব্রেকিংনিউজ/ এমজি

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2