শিরোনাম:

মাজুল হাসান-এর পাঁচটি কবিতা

শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক
২৩ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 7:39
মাজুল হাসান-এর পাঁচটি কবিতা

১.
ঘুমাতে পারছি না, চোখ বুজলেই কে যেন কলার চেপে ধরছে...

আমি তো এক হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলাম আকাশে, বিদ্যুৎলতায়
দ্যাখো এখনও মাদুলি, পেপিরাস, মেঘলিখন আমার শরীরে
রংধনুতে কোনো কালো নেই, তবু ক্যানো এই ব্ল্যাকাউট? নির্মম?
আমি তো আরেক হাত প্রথিত করেছিলাম পাতালে, পদ্মঘুমে, চূড়ায়
এই শহরই আমার এভারেস্ট, ডেড সি, ক্ষীণহরিৎ, প্রিয় লেভেরিন্থ
লোমওঠা নেড়ি কুকুরটাসহ আমি ওকে ভালো পেতাম, ভালো পাই
রানওয়ে সমেত শুয়ে থাকে এয়ারপোর্ট, নাভির মতো পোতাশ্রয়
সন্নিকটে সমুদ্রবন্দর; তবু আমি তো পালিয়ে যাইনি নীলের অপারে

এখন চোখ খুলতে ভয় পাই, তাকালেই কেউ যদি কলার চেপে ধরে...

২.
আপনারা দেখছেন পাখি আশ্রম - ধ্বস্ত উড়াল- ভুল দেখছেন
আপনারা দেখছেন কান্নাগ্যাস গলা বরাবর দন্তনখর- ভুল দেখছেন
আপনারা দেখছেন ছায়াঘাতক- লাঠিচার্জ কোলাকুলি- ভুল দেখছেন
আপনারা দেখছেন ক্রুদ্ধ মুখ ফাটা দুপুর- ভুল দেখছেন
আপনারা দেখছেন কঠিন বুট সপাট লাথি- ভুল দেখছেন
আপনারা দেখছেন এই আমাকে বোকাবাক্স- ভুল দেখছেন
আপনারা দেখছেন তীব্র তবল পুতুল নাচ - ঠিক দেখছেন
পুতুল নাচে না, সুতায় নাচে- ভুল দেখছেন

৩.
ছাতা মাথায় লোকটা এই নগরীর একমাত্র
ময়ূর৷ ছাট বৃষ্টিতে ঠিকরে বের হচ্ছে
শরীরের ৩য় উত্তাপ, একদা সবুজ বনস্থালী
কূটোছাই, পোড়া-কেকা; বিস্মৃত দাবানল

মানুষ- আবারও বুনো গন্ধ, বুনোপুচ্ছ
নাড়িয়ে ডাকো- মানুষী সাড়া দেবে ঠিক

ফের জলকেলি; পত্রমোচী তুমুল দুপুর...

৪.
গোলাপ—ঘ্রাণদম্ভ নয়, তোমার কাঁটা ভালোবাসি
কাঁটারা পষ্ট—চড়ুইয়ের চিৎকারে ঝলসানো দুপুর
চাইলেই ফিরে যাওয়া যায়, পাঁচিলও নয় অলঙ্ঘ্য
তবু ভালোবাসা—গগনচূড়, পুকুর, পিতলের বুদ্বুদ

আমার নাম লালপীড়িত

৫.
দেহকাণ্ডবীণ
----

লেলিহান চুমু শীতলতার মানে তুমিই বোঝ শুধু
তুমিই প্রকৃত অস্থিবাদক। বাক্যনীড় থেকে
সতত ঈর্ষা করি তোমায়
লালাতন্তু-লালাতন্তু বলে ডাকে বৃষ্টিরহিত দিন
অতঃপর বিজলি চমক, লেপ্টে যায় জামা
আলোকসঙ্গত-আলোকসঙ্গত
রূপ ও শৃঙ্খলের মানে আমি জানি—হে শস্যকারাগার

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2