Ads-Top-1
Ads-Top-2

রফতানি আয় লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় পিছিয়ে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৪ জুলাই ২০১৮, বুধবার
প্রকাশিত: 03:36:00 আপডেট: 04:32:00
রফতানি আয় লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় পিছিয়ে

বিদায়ী ২০১৭-১৮ অর্থবছর (জুলাই-জুন) শেষে দেশের রফতানি আয় বেড়েছে আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ৮১ শতাংশ বেশি। এ সময়ে রফতানি আয় হয়েছে ৩ হাজার ৬৬৬ কোটি ৮১ লাখ মার্কিন ডলার পণ্যে। তবে রফতানি আয় লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় কিছুটা পিছিয়ে আছে। 

রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) সবশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। 

প্রতিবেদন অনুযায়ী, আলোচ্য বছরে রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩ হাজার ৭৫০ কোটি ডলার। সে হিসেবে লক্ষ্যমাত্রা থেকে রফতানি কম হয়েছে মাত্র ২ দশমিক ২ শতাংশ। এর আগে গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশের রফতানি আয় ছিল ৩ হাজার ৪৬৫ কোটি ৫৯ লাখ মার্কিন ডলার।

বাংলাদেশের রফতানি খাত মূলত পোশাক নির্ভর। রফতানিতে পোশাক খাতের অবদান দিন দিন বাড়ছে।

ইপিবির তথ্য অনুযায়ী, এই অর্থবছরে যে পরিমাণ পণ্য বাংলাদেশ থেকে রফতানি হয়েছে, তার মধ্য সবচেয়ে বেশি তৈরি পোশাক খাতের পণ্য। গার্মেন্টস খাত থেকে এ সময়ে রফতানি আয় এসেছে ৩ হাজার ১৬ কোটি ডলার। গতবছর থেকে যা ৮ দশমিক ৭৬ শতাংশ বেশি।

বিশ্লেষকরা মনে করছেন, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার কারণে পোশাক খাত রফতানিতে ভালো করছে। তবে এর ইতিবাচক প্রভাব সার্বিকভাবে রফতানিতে পড়েছে। 

সরকারের তথ্য অনুযায়ী, সদ্য শেষ হওয়া বছরে পোশাক ছাড়াও পাট ও পাটজাত পণ্য, হোম টেক্সটাইল, কৃষিজাত পণ্য রফতানিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে। তবে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, প্রকৌশল পণ্য, হিমায়িত খাদ্য, প্লাস্টিক পণ্য রফতানিতে প্রবৃদ্ধি হয়নি।

ব্রেকিংনিউজ/ এমঅাই/ এসএ 

Ads-Sidebar-3
Ads-Sidebar-3
Ads-Sidebar-3
Ads-Top-1
Ads-Top-2