Ads-Top-1
Ads-Top-2

রাজশাহীতে পুলিশকে পিটুনি, গ্রেফতার ৭

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রাজশাহী
১৫ জুন ২০১৮, শুক্রবার
প্রকাশিত: 09:32:00 আপডেট: 09:33:00
রাজশাহীতে পুলিশকে পিটুনি, গ্রেফতার ৭

রাজশাহীতে মাদক বিক্রেতাকে ছিনিয়ে নিতে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগে চার পুলিশ ও দুই সোর্সকে আটক করে পিটুনি দিয়েছে স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) রাতে কাটাখালী থানার বেলঘরিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সাতজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আসামীদের শুক্রবার (১৫ জুন) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।  

স্থানীয়দের অভিযোগ, রাতে পুলিশের সোর্স রকি ও মনির বেলঘরিয়া এলাকার মৃত জাকির হোসেনের ছেলে কবির হোসাইন (২৪) কে কথা আছে বলে ফোনে ডেকে নেয়। কবিরকে বাড়ির বাইরের রাস্তায় আসতে বলে। কবির বেলঘরিয়া ব্রিজের পাশে আসার পর পরই সাদা পোশাকে থাকা কাটাখালী ফাঁড়ির এএসআই আমিনুল ইসলাম মাদক বিক্রেতা কবিরের হাতে হাতকড়া পরিয়ে দেয়।

এ সময় কবিরের সঙ্গে এএসআই আমিনুল ও রকির ধস্তাধস্তি হয়। এ ঘটনার সময় স্থানীয় কয়েকজন মহিলা গিয়ে হৈচৈ শুরু করে এবং ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ তুলে। এক পর্যায়ে এলাকার লোকজন জড়ো হয়ে যায়। এ সময় আমিনুল কাটাখালি ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আসাদকে খবর দিলে তিন পুলিশকে নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন তিনি। তারা উপস্থিত হওয়ার পর স্থানীয় লোকজন তাদের উপর হামলা চালায়। তারা এসআই আসাদসহ চার পুলিশ ও দুই সোর্সকে আটক করে মারপিট করে। এ সময় তারা হাতকড়া পরিহিত কবিরকে ছিনিয়ে নেয়। পরে খবর পেয়ে থানা থেকে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এ সময় পুলিশ দুইজকে আটক করে।

ইনচার্জ এসআই আসাদ জানান, কবির পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। তার পিতাও এক সময় মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন। এএসআই আমিনুল দুই সোর্সকে নিয়ে ইয়াবা কেনার নামে কবিরকে আটক করতে গিয়েছিল। কবিরের কাছ থেকে তারা ৪ পিস ইয়াবা কিনে নেয়। রকির হাতে চার পিস ইয়াবা দেয়ার সময় কবিরের হাতে হাতকড়া পরিয়ে দেয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন এসে তাদের ঘিরে ফেলে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ তুলে। খবর পেয়ে তারা সেখানে গেলে লোকজন তাদের উপর হামলা চালায়।

এসআই আসাদ আরো জানান, পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে ৩৪ জনকে আসামী করা হয়। এর পর রাতে ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরও ৫ জনকে আটক করা হয়। আটক সাতজনকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে শুক্রবার দুপুরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

ব্রেকিংনিউজ/এসডিএম/আরএ

Ads-Sidebar-3
Ads-Sidebar-3
Ads-Sidebar-3
Ads-Top-1
Ads-Top-2