শিরোনাম:

বিমানবন্দরের এক পাশে অঝোরে কাঁদছেন লাবনী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২১ মে ২০১৮, সোমবার
প্রকাশিত: 3:40 আপডেট: 4:33
বিমানবন্দরের এক পাশে অঝোরে কাঁদছেন লাবনী

স্রোতের মতো দেশে আসতে শুরু করেছেন সৌদি আরবে নির্যাতনের শিকার বাংলাদেশি নারীরা। কিন্তু দেশে ফেরত নারীদের যেন ভাগ্য ফেরেনি, বরং কোনোভাবে পালিয়ে বেঁচে এসেছেন তারা। সঙ্গে আর কিছুই নেই, কারও হাতে একটা হাত ব্যাগ, সঙ্গে একটি পলিব্যাগ। নেই মোবাইল ফোন, কারও আবার মোবাইল থাকলেও তাতে টাকা নেই যে বাড়িতে ফোন করে জানাবেন। কেউবা আবার এসেছেন একেবারেই এক কাপড়ে। কেউবা আবার দেশে ফিরে এলেও বাড়িতে যোগাযোগ করছেন না, ঠাঁয় দাঁড়িয়েছিলেন বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে। অনেকেই বলছেন, বড় বড় স্বপ্ন নিয়ে গেছি কিন্তু এখন বাড়িতে যোগাযোগ করতে লজ্জা করছে, জানিনা কীভাবে বাড়িতে ফিরে যাবো, আত্মীয়দের সামনে মুখ দেখাবো কেমন করে।

টাঙ্গাইলের আয়েশা, বরিশালের সুমনা, নাসিমা খাতুন, হবিগঞ্জের মোর্শেদা, ফাতেমা স্বপ্নার চোখে-মুখে দীর্ঘ দিনের নির্যাতনের ছাপ। বিমানবন্দরের কার্নিভ্যালে এসেই নিজ দেশের মানুষ দেখে তারা কান্নায় ভেঙে পড়েন। অথচ এরা কেউ তাদের চেনা নয়, নয় আপনজন।

দিনাজপুরের মনজুরা বেগম বলেন, ‘আমার পাসপোর্টসহ ইজ্জত-সম্মান সব দিয়ে এসেছি। মালিকের নির্যাতন থেকে পালিয়ে বাংলাদেশের দূতাবাসে যাই। দূতাবাস থেকে ট্রাভেল পাস দিয়ে দেশে আসি।’



সৌদি থেকে ফেরা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের এক পাশে চোখের পানি ছেড়ে দিয়ে অঝোরে কান্না করছিলেন লাবনী (ছদ্মনাম) নামে এক নারী শ্রমিক।

লাবনী বলেন, ‘দুই বছর আগে রিয়াদ যান তিনি। সৌদি আরবে আসার পর তাকে প্রথমে ১৫দিন একটি কারাগারের মতো জায়গায় রাখা হয়। এরপর তাকে ৭৭ কিলোমিটার দূরে আল খারজ শহরে নিয়ে যাওয়া হয়। বেতন বলা হয়েছিল এক হাজার রিয়াল। ৪ মাস সেখানে কাজ করেন। এই সময় তাকে পরিবারের সঙ্গে কোনও কথা বলতে দেওয়া হয়নি।  কোনো বাবা-মা যেন তার মেয়েকে সৌদি আরবে না পাঠান। হাজার হাজার মক্তবে শত শত বাংলাদেশি মেয়ে আছে। ওদের তালাবদ্ধ করে রাখে।’

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, তারা সবাই অমানবিক নির্যাতন সইতে না পেরে ইমিগ্রেশন ক্যাম্পে আশ্রয় নেন। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের আর্থিক সহায়তায় এই নারী শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনা হয়।

গত দু’দিনে এসেছেন শতাধিক। শনিবার (১৯ মে) রাত ৯টায় এয়ার এরাবিয়ার একটি ফ্লাইটে গৃহকর্মী হিসেবে সৌদি আরবে যাওয়া ৬৬ জন নারী দেশে ফিরে এসেছেন। রবিবার (২০ মে) রাত ৯টার দিকে এয়ার এরাবিয়ার এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেন আরও ২১ বাংলাদেশি নারী শ্রমিক। 

এ তথ্য ব্রেকিংনিউজকে নিশ্চিত করেছেন শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের ইনচার্জ মো. হেলাল উদ্দিন।

জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) তথ্য মতে, ২০১৭ সালে অভিবাসী নারীর সংখ্যা ছিল ১২ লাখ ১৯ হাজার ৯২৫ জন, যা মোট অভিবাসন সংখ্যার ১৩ শতাংশ।

ব্রেকিংনিউজ/ টিটি/ এসএ 

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2