Ads-Top-1
Ads-Top-2

সিলেটে এগিয়ে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,
ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
২৩ জুলাই ২০১৭, রবিবার
প্রকাশিত: 01:54:00 আপডেট: 06:02:47
সিলেটে এগিয়ে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীরা
ফাইল ফটো

সিলেট: বরাবরের ন্যায় এ বছরও সিলেট শিক্ষা বোর্ডের সার্বিক ফলাফলে নিয়ন্ত্রকের ভূমিকায় রয়েছে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এই বিভাগের ভালো ফলাফল অপেক্ষাকৃত পিছিয়ে থাকা মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষার ফলাফলকে সামলে নিয়ে সিলেট বোর্ডকে বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা করেছে।

রবিবার (২৩ জুলাই) প্রকাশিত উচ্চ মাধ্যমিকের (এইচএসসি) ফলাফলের বিশ্লেষণে দেখা গেছে, মানবিকের শিক্ষার্থীরা সবচেয়ে পিছিয়ে রয়েছে। এই বিভাগের ৩২ শতাংশ শিক্ষার্থী পরীক্ষায় ফেল করেছে। জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রেও মানবিকের শিক্ষার্থীরা সবচেয়ে পিছিয়ে। এই বিভাগের মাত্র ২৬ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে।

ফলাফলে আরও দেখা গেছে, সিলেট শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ১০ হাজার ৪শ’ ৭৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে পাস করেছে ৮ হাজার ৭শ’ ৪৬ জন। পাসের হার ৮৩ দশমিক ৪৭ ভাগ। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬শ’ ৪ জন, ‘এ’ গ্রেড ২ হাজার ৫শ’ ৮৭ জন, ‘এ’ মাইনাস গ্রেড ২হাজার ৫শ’ ৬৫ জন, ‘বি’ গ্রেড ২ হাজার ১শ’ ৫৫ জন, ‘সি’ গ্রেড ৮শ’ ৩৫ জন শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। তবে  ‘ডি’ গ্রেডে কেউ উত্তীর্ণ হয়নি। এ ছাড়া ১ হাজার ৭শ’ ৩২ জন শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে।

মানবিক বিভাগ থেকে ৪৩ হাজার ২শ’ ৮৪ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে পাস করেছে ২৯ হাজার ৩শ’ ৫৬ জন। পাসের হার ৬৭ দশমিক ৮২ ভাগ। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬ জন, ‘এ’ গ্রেডে ১ হাজার ৩শ’ ২৫ জন, ‘এ’ মাইনাস গ্রেডে ৩ হাজার ৭শ’ ৯ জন, ‘বি’ গেডে ৭ হাজার ৭শ’ ৩৩ জন, ‘সি’ গ্রেডে ১৫ হাজার ১শ’ ৯০ জন এবং ‘ডি’ গ্রেডে ১ হাজার ৩ শ’৭৩ জন শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। এ ছাড়া ১৩ হাজার ৯শ’২৮ জন শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে।

বাণিজ্য বিভাগ থেকে ১১ হাজার ২শ’ ৩৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে পাস করেছে ৮ হাজার ৬শ’ ৯৫ জন। পাসের হার ৭৭ দশমিক ৩৭ ভাগ। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭০ জন, ‘এ’ গ্রেডে ১ হাজার ১০ জন, ‘এ’ মাইনাস গ্রেডে ১ হাজার ৭শ’ ২২ জন, ‘বি’ গ্রেডে ২ হাজার ৪শ’ ৫৩ জন, ‘সি’ গ্রেডে ৩ হাজার ২শ’ ২৩ জন ও ‘ডি’ গ্রেডে ২শ’ ১৭জন শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। এ ছাড়া ২ হাজার ৫শ’ ৪৩ জন শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে।  

শিক্ষাবিদেরা বলছেন, বিজ্ঞানে ভালো ফলাফল কাঙ্খিত হলেও সেটি অন্য বিভাগকে খারাপ করে নয়। বরং যারা মানবিক কিংবা অন্য কোনও বিভাগ থেকে পড়াশোনা করছে তাদেরকেও সমানভাবে গুরুত্ব দিতে হবে।

তবে শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক সিলেট শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ শামসুল ইসলাম জানান, ইংরেজি ভীতির কারণে ফলাফলে পাসের হারের প্রভাব পড়েছে। একই সাথে পরীক্ষায় সময় আগাম বন্যা হওয়ায় শিক্ষার্থীদের মনোবলে ব্যাঘাত ঘটিয়েছে, যার কারণে এবার জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যাও কমেছে। তবে সার্বিক ফলাফলে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

উল্লেখ্য, সিলেট শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এবারের উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষায় পাসের হার ৭২ শতাংশ। যা গতবারের থেকে ৩ দশমিক ৪১ শতাংশ বেশি। গতবারে পাসের হার ছিল ৬৮ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

গতবারের পাসের হাসের সূচক কিছুটা বাড়লেও এবার কমেছে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা। এবছর জিপিএ-৫ পেয়েছে মোট ৭০০ জন শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ছেলে ৪৫৫ ও মেয়ে ২৪৫ জন।

যা গতবারের তুলনায় ৬৩০ টি কম। গতবার জিপিএ-৫ পায় ১ হাজার ৩৩০ জন পরীক্ষার্থী। জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৬০৪ জন, মানবিক বিভাগ থেকে ২৬ জন এবং ব্যবসা শিক্ষা থেকে ৭০ জন।

 ব্রেকিংনিউজ/ এএএন/ এসএ 

Ads-Sidebar-3
Ads-Sidebar-3
Ads-Sidebar-3
Ads-Top-1
Ads-Top-2