শিরোনাম:

হাট ইজারাদারের কাছে চাঁদা দাবি, সংঘর্ষে আহত ৩

জেলা প্রতিনিধি, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : সোমবার, ১৯ জুন ২০১৭, ১০:২৫
অ-অ+
হাট ইজারাদারের কাছে চাঁদা দাবি, সংঘর্ষে আহত ৩
ছবি: ব্রেকিংনিউজ

গাইবান্ধা: সদর উপজেলার দাড়িয়াপুর হাট ইজারাদারের কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা চেয়েছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। পরে চাঁদা না পেয়ে ইজারাদারের লোকজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে তিনজনকে গুরুতর আহত করা হয়। আহতদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং অপরজনকে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

সোমবার (১৯ জুন) বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, চলতি বছরের এপ্রিল মাসে দাড়িয়াপুর হাট এক কোটি ৯৫ লাখ টাকায় ইজারা নেন আরিফ মিয়া রিজু। এই হাটটি ঐতিহ্যবাহী হওয়ায় হাটে রিকশা, ভ্যান, বাইসাইকেল, গরু, ছাগলসহ নানা ধরণের পন্যসামগ্রী ওঠে। ফলে হাটের জায়গা সংকুলান না হওয়ায় হাটের পাশে ৯৫ শতাংশ জমি ক্রয় করেন ইজারাদার। 

সেই জমি ক্রয়ের পর থেকে বিভিন্ন সময় স্থানীয় মৃত ইয়াকুব আলীর ছেলে নাজমুল ও তার লোকজন ইজারাদার আরিফ মিয়া রিজুর কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এ ঘটনায় স্থানীয়ভাবে কয়েক দফা সালিশ বৈঠক হয়। কিন্তু বিষয়টি অমিমাংসিত থেকে যায়। 

এরই এক পর্যায়ে সোমবার বিকেল তিনটার দিকে ওই ক্রয়কৃত জায়গাটি দখলে নামে নাজমুল বাহিনী। এতে আরিফ মিয়া ও তার লোকজন বাধা দিলে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

এসময় আরিফ মিয়ার পক্ষের খোলাহাটি ইউনিয়নের ফারাজিপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস সামাদ হক্কানীর ছেলে সামুদ হক্কানী (৫০), পশ্চিম কোমরনই দশানি এলাকার কাশেম মিয়ার ছেলে মানিক মিয়া (৩০) ও মৃত বাছরত আলীর ছেলে ছাইদার (৫০) গুরুতর আহত হন। 

তাদেরকে প্রথমে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে আহতদের মধ্যে সামুদ হক্কানী ও মানিক মিয়াকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মেহেদী হাসান সন্ধ্যায় বলেন, ‘এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।’

ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/ এআর