শিরোনাম:

অনলাইনে ঈদের টিকিট

ইমদাদুল হক, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : সোমবার, ১৯ জুন ২০১৭, ০৫:৩৭
অ-অ+
অনলাইনে ঈদের টিকিট

ঢাকা: ঈদে প্রতি বছরই ঘরমুখো মানুষের কাছে টিকেট হয়ে ওঠে সোনার হরিণ। বাসে কিংবা রেলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লম্বা লাইনে দাঁড়িয়েও মিলছে না টিকিট। অনেকেই কাঙ্ক্ষিত টিকিট না পেয়ে ভগ্ন হৃদয়ে ফিরে যাচ্ছেন। 

কিন্তু আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তির যুগে অনলাইন দিচ্ছে এই টিকিট বিড়ম্বনা থেকে মুক্তি। দীর্ঘ লাইনে না দাঁড়িয়ে মুঠোফোন কিংবা অনলাইনেই সহজে সংগ্রহ করা যাচ্ছে ঈদে বাড়ি ফেরার ট্রেন ও বাসের টিকিট। এবার নতুন করে এই সুবিধা যুক্ত হয়েছে লঞ্চের টিকিটেও।

বাসের টিকিট: বেশ কয়েক বছর ধরেই সহজ ডটকম (https://www.shohoz.com/), বাসবিডি.কম (http://busbd.com.bd) ইত্যাদি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান অনলাইনে নির্দিষ্ট কিছু বাসের টিকিট বিক্রি করছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সহজ ডটকম প্রধান নির্বাহী মালিহা কাদির ব্রেকিংনিউজকে জানিয়েছেন, তারা ৪৩টি বাস কোম্পানির টিকিট অনলাইনে বিক্রি করেন। কলসেন্টারে ফোন করে বা অনলাইনে কেউ চাহিদা দিতে পারেন। এই সেবা পেতে ১৬৩৭৪ নম্বরে কল করতে হবে। এছাড়াও ব্র্যাক ব্যাংক ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ঈদের টিকেট কাটলে যাত্রীকে ১০% ক্যাশ ব্যাক দেয়া হচ্ছে।

বাসবিডি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রির সময়কাল ২০ জুন থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত। উল্লিখিত সময়ের মধ্যে কোনও প্রকার টিকিট বাতিল/সময় পরিবর্তন/টিকিটের মূল্য ফেরতযোগ্য নয়। ঈদের সিডিউলে কোনও প্রকার বিপর্যয় বা বাস ছাড়তে দেরি হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না।

ট্রেনের টিকিট: রাত জেগে দীর্ঘ লাইনে না দাঁড়িয়েও এখন ইন্টারনেটে ট্রেনের টিকেট কাটার ব্যবস্থা রয়েছে। টিকেট কাটতে https://www.esheba.cnsbd.com ঠিকানায় গিয়ে মোবাইল ফোন নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। এরপর ই-মেইল ঠিকানা এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগইন করতে হবে। তারপর নির্ধারিত গন্তব্যের টিকিট বেছে নিয়ে ভিসা বা মাস্টারকার্ড সমর্থিত ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড কিংবা ডিবিবিএল নেক্সাস গেটওয়ের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করার পর গ্রাহকের ই-মেইল ঠিকানায় বিস্তারিত তথ্য পাঠিয়ে দেয়া হবে।

এটির প্রিন্ট নিয়ে ট্রেন ছাড়ার ১৫ মিনিট আগে স্টেশনে উপস্থিত হতে হবে। এরপর ই-টিকেটের জন্য ২০ টাকা অতিরিক্ত মাশুল দিতে হবে। ভিসা, মাস্টার কার্ড বা ব্র্যাক ব্যাংক, ডিবিবিএল, অ্যামেক্স এই পাঁচ ব্যবস্থার মাধ্যমে টিকেটের মূল্য পরিশোধ করা যায়।

লঞ্চের টিকিট: পুরান ঢাকার তীব্র জ্যাম না মাড়িয়ে এবার অনলাইনেই লঞ্চের টিকিট সুবিধা চালু করেছে আসাযাওয়া.কম (http://ashajawa.com)। ঢাকা থেকে মোট ৪৫টি রুটের টিকেট সরবরাহ করছে প্রতিষ্ঠানটি। 

আসাযাওয়া.কম সিইও রিফাত খন্দকার ব্রেকিংনিউজকে জানান, কালোবাজারি রোধ করতে একটি অ্যাকাউন্ট থেকে মোট ৪টি টিকিট কেনা যাবে। আর টিকিট ক্রয়ে ১০০ টাকা পর্যন্ত ছাড় মিলবে। এই ছাড় পরবর্তী যাত্রায় উপভোগ করতে পারবেন ক্রেতা।     

ঈদ ভ্রমণে ছাড়
জোভাগো: ঈদ উপলক্ষে অনলাইন হোটেল বুকিংয়ে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিয়েছে অনলাইন হোটেল বুকিং প্ল্যাটফর্ম জোভাগো (https://www.jovago.net)। ‘রমজান গেটওয়ে’ ও ‘ঈদ বোনানজা’ এই অফারটি  সিটি ব্যাংকের আমেরিকান এক্সপ্রেস ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড থাকলে এ সুবিধা পাওয়া যাবে। দেশের নির্দিষ্ট কিছু হোটেলে ‘রমজান গেটওয়ে’অফারে ৯০ শতাংশ ও ‘ঈদ বোনানজা’ অফারে ৭১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিতে সিটি ব্যাংক ও জোভাগো বিশেষ চুক্তি সই করেছে। চুক্তি অনুযায়ী, সিটি ব্যাংকের আমেরিকান এক্সপ্রেস ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড কম খরচে ঘরে বসেই জোভাগো ওয়েবসাইট অথবা মোবাইল অ্যাপ থেকে হোটেল বুকিং দিতে পারবেন। এ সুবিধা ২৬ মে থেকে শুরু হয়ে জুলাইয়ের ১ তারিখ পর্যন্ত চলবে।

ঘুরবো: ঈদে পর্যটকদের হোটেল বুকিংয়ে সর্বোচ্চ ৪০ শতাংশ ছাড় দিয়েছে অনলাইন মার্কেটপ্লেস ঘুরবো (http://www.ghurbo.com)। এছাড়াও ইবিএল ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে অনলাইনে মূল্য পরিশোধকারী পাবেন আরও বাড়তি ৫ শতাংশ ছাড়। আর বিকাশ-এর মাধ্যমে পেমেন্টে মিলবে ২০ শতাংশ ক্যাশ ব্যাক সুবিধা। একই সঙ্গে এখন থেকে ঘুরবো ডটকমে এয়ার এশিয়ার বিমান টিকেট সাশ্রয়ী মূল্যে টাকা যাবে। 

ঘুরবো হেড অফ মার্কেটিং মুহাম্মদ তাহের জামিল ব্রেকিংনিউজকে জানান, ‘বছরের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতরকে স্মরণীয় করে রাখতে ঘুরবো এবারও বড় ধরনের ছাড় ঘোষণা করেছে। আমাদের পার্টনাররা দেশের বিভিন্ন আকর্ষণীয় পর্যটন স্পটে যাওয়া থাকা-খাওয়াসহ আনুসাঙ্গিক নানা বিষয়ে গ্রাহকদের বাড়তি সুবিধা দেবেন। ঘুরবোর মাধ্যমে গ্রাহক হোটেল বুকিং দিলে তিনি থাকবেন বীমা সুবিধার আওতায়। আমরা আশাকরি, এসব সুবিধাগুলো গ্রাহকরা উপভোগ করবেন।’

ব্রেকিংনিউজ/ ইহক/ এমআর