শিরোনাম:

কাশ্মিরে সিআরপিএফ ক্যাম্পে গেরিলা হামলা

ভারত ডেস্ক,
ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৩ জুন ২০১৭, ০৮:৪৮
অ-অ+
কাশ্মিরে সিআরপিএফ ক্যাম্পে গেরিলা হামলা

ঢাকা :  ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মিরের পুলওয়ামা জেলার ত্রালে আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএফ ক্যাম্পে অজ্ঞাত গেরিলা হামলায় ২ জওয়ান আহত হয়েছে। গত সোমবার (১২ জুন) রাতে গেরিলারা গ্রেনেড হামলা চালালে ওই জওয়ানরা আহত হয়।

গেরিলারা আন্ডার ব্যারেল গ্রেনেড বা ইউবিজিএলের মাধ্যমে ওই হামলা চালায়। আক্রমণকারী গেরিলাদের খোঁজে নিরাপত্তা বাহিনী গোটা এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছে। 

পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে মঙ্গলবার (১৩ জুন) গণমাধ্যমে প্রকাশ, দক্ষিণ কাশ্মিরের ত্রাল এলাকার প্রধান শহরে সিআরপিএফের ১৮০ ব্যাটেলিয়ানের ক্যাম্প রয়েছে। সোমবার রাতে গেরিলারা সেখানে গ্রেনেড হামলা চালায়।

এদিকে আজ (মঙ্গলবার) জেকেএলএফ প্রধান মুহাম্মদ ইয়াসীন মালিককে শ্রীনগরের আবি গুজার থেকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তাকে কোঠিবাগ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। অন্যদিকে, গত সন্ধ্যায় হুররিয়াত নেতা মীরওয়াইজ ওমর ফারুককে গৃহবন্দি করা হয়েছে। 

এরআগে গত রোববার রাতে শ্রীনগরের সরাফকাদল এলাকায় অজ্ঞাত গেরিলারা গ্রেনেড হামলা চালায়। ওই ঘটনায় এক কর্মকর্তা এবং তিন পুলিশকর্মীসহ মোট ৪ জন আহত হয়। চলতি মাসে এ নিয়ে সিআরপিএফ ক্যাম্পে দ্বিতীয়বার গেরিলা হামলার ঘটনা ঘটল।

অন্যদিকে, গত কয়েকদিন ধরে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ভারত ও পাকিস্তান সেনাবাহিনীর মধ্যে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে পাল্টাপাল্টি গুলিবর্ষণ চলছে। সোমবার সেনা সূত্র জানিয়েছে, গত ১২ দিনে পাকিস্তান ৯ বার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছে।

এদিকে, সোমবার কাশ্মির উপত্যাকায় স্কুল ও কলেজের ছাত্ররা তুমুল বিক্ষোভ দেখায়। সম্প্রতি দক্ষিণ কাশ্মিরে তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এক ছাত্র নিহত হওয়ার প্রতিবাদে সরকারি ডিগ্রি কলেজের ছাত্ররা নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়লে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। 

এসময় ছাত্ররা কলেজ ভবনের মাথায় পাকিস্তানি পতাকা ওড়ায়। উত্তেজিত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশকে লাঠি চালানোসহ কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটাতে হয়। -সূত্র : রেডিও তেহরান।


ব্রেকিংনিউজ/এম হায়দার