মঙ্গলবার ১০ই জানুয়ারী ২০১৭ দুপুর ১২:৫৫:১৯

ভুলত্রুটি হবে না কখনোই বলিনি, ভুল থাকবে: শিক্ষামন্ত্রী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি

ভুলত্রুটি হবে না কখনোই বলিনি, ভুল থাকবে: শিক্ষামন্ত্রী

ঢাকা: ব্যাপক সমালোচনার মুখে বিনামূল্যের পাঠ্যবইয়ে ভুলত্রুটি স্বীকার করে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, কম সময়ে ছাপাতে গিয়ে বইয়ে ভুল হতে পারে। কোনো ভুলত্রুটি হবেনা কখনোই বলিনি। ভুল থাকবে, আমরা তা সমাধান করে করে এতদিন এগিয়েছি।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি)  শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। নতুন শিক্ষাবর্ষে  ছাপানো বিনামূল্যের পাঠ্যবইয়ে ভুলত্রুটি ধরা পরা এবং সমালোচনার প্রেক্ষিতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী বলেন, ২০১৭ সালে মুদ্রিত পাঠ্যপুস্তকে ভুলত্রুটি নির্ণয় ও এসব ভুলত্রুটির জন্য দায়ীদের দোষ প্রমাণ হলে সবার বিরুদ্ধেই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ছড়া ও কবিতায় যারা ভুলগুলো করেছে তারা অবশ্যই অযোগ্য। তিনি বলেন, এখন বড় ভুলগুলোর সংশোধনের কাজ চলছে। এরই মধ্যে দু’জনকে ওএসডি করা হয়েছে। দোষী প্রমাণ হলে সবার বিরুদ্ধেই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের আলোকে পাঠ্যপুস্তকে ভুল সমাধানে ব্যবস্থা নেয়া হবে। অবস্থা বুঝে কীভাবে কি (ভুলের) সমাধান করা যায়, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেব। আমরা আশা করি এতে শিক্ষার্থীদের বড় কোনো ক্ষতি হবেনা। ভুলত্রুটি যা হয়েছে তা ঠিক করে শিশুদের পড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনাও দ্রুত সময়ের মধ্যে দেয়া হবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

এ সময়  ভুলত্রুটির জন্য সমালোচনা না করে, শিশুদের নিরুৎসহিত না করে তাদের উৎসাহিত করতে অনুরোধ জানান শিক্ষামন্ত্রী। সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষা সচিবসহ এনসিটিবির শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ৯ জানুয়ারি ২০১৭ সালের পাঠ্যপুস্তকে ভুলত্রুটির জন্য প্রাথমিক তদন্তের প্রেক্ষিতে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের প্রধান সম্পাদক প্রীতিশ কুমার সরকার ও ঊর্ধ্বতন বিশেষজ্ঞ লানা হুমায়রা খানকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করা হয়েছে।
 

দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে কমিটি গঠন
পাঠ্যবইয়ে ভুলত্রুটি নির্ণয় ও এসব ভুলত্রুটির জন্য দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে যথাযথ সুপারিশ প্রদানের লক্ষ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রুহী রহমানকে আহ্বায়ক করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি উচ্চ ক্ষতাসম্পন্ন কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের যুগ্মসচিব মাহমুদুল ইসলাম এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (মাধ্যমিক)। এ কমিটি আগামী ৭ কর্ম দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করবে।

ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/টিআইএস/এনএআর

আপডেট: মঙ্গলবার ১০ই জানুয়ারী ২০১৭ বিকাল ০৩:১৩:৫৮