বুধবার ৭ই ডিসেম্বর ২০১৬ দুপুর ০১:১৫:৪৭

শীতে কাঁপছে উত্তরের জনপদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি

শীতে কাঁপছে উত্তরের জনপদ

রাজশাহী: হিমেল হাওয়ায় উত্তরাঞ্চলে বেড়েছে শীতের প্রকোপ। ঠান্ডা বাতাসে থরথর করছে শরীর। গরম কাপড়ের খোঁজে নেমে পড়েছেন ক্রেতারা। শীতের প্রকোপে দরজা জানালা বন্ধ করেছে অনেকে।

সোমবার রাত থেকে এ অঞ্চলের উপর দিয়ে ঠান্ডা বাতাস বইতে শুরু করে । এই সঙ্গে বেড়েছে ঘন কুয়াশাও। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত কুয়াশার চাদরে ঢেকে ছিল। আর সূর্যের সাক্ষাৎ মেলে তারও পরে। ফলে কমেছে এ অঞ্চলে তাপমাত্রা। মঙ্গলবার সকালে রাজশাহীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৪ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তা জানান, গত ১ ডিসেম্বর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৯ দশমিক ৪ এবং সর্বনিম্ন ১৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়েস। ২ ডিসেম্বর সর্বোচ্চ ছিল ২৯ দশমিক ছয় এবং সর্বনিম্ম ১৬ দশমিক ৬। ৩ তারিখে সর্বোচ্চ ২৮ দশমিক আট এবং সর্বনিম্ন ১৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

৫ ডিসেম্বর দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৬ দশমিক নয় এবং সর্বেনিন্ম ছিল ১৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়স। সেটি মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) নেমে আসে ১৪ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে, চলতি ডিসেম্বর মাসের শেষের দিকে দেশের ওপর দিয়ে এক থেকে দুটি মৃদু বা মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস দিতে আবহাওয়া অধিদফতরের গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি এ পূর্বাভাস দিয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতরে রোববার কমিটির নিয়মিত বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। অধিদফতরের পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) ও বিশেষজ্ঞ কমিটির চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন আহমেদ এতে সভাপতিত্ব করেন।

কাগজ-কলমের হিসাব অনুযায়ী বাংলা পৌষ ও মাঘ মাস শীত ঋতু। রোববার অগ্রহায়ণের ২০ তারিখ। কিন্তু গ্রামের প্রকৃতিতে এখনই শীতের পুরো আমেজ। তবে ক্যালেন্ডারের হিসাব অনুযায়ী আগামী ১৫ ডিসেম্বর শুরু হবে পৌষ মাস। আবহাওয়া অধিদপ্তরের সমীক্ষা যাই হোক রাজশাহীতে শীতের প্রকোপে শহর-বন্দর গ্রামে দরজা জানালা বন্ধ করেছে অনেকে।

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, বাতাসের তাপমাত্রা ও তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রির বেশি থেকে ১০ ডিগ্রির মধ্যে হলে তাকে মৃদু এবং ৬ থেকে ৮ ডিগ্রির মধ্যে হলে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বলে। তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে হলে তাকে বলে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ।

আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ বলেন, বিশেষজ্ঞ কমিটির পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী চলতি মাসে স্বাভাবিক শীত থাকবে। তবে জানুয়ারি বা এর পরে কী হবে তা আরও পরে সুনির্দিষ্ট করে বলা যাবে।

চলতি মাসে রাতের তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে কমবে এবং ডিসেম্বর মাসের শেষার্ধে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দুটি মৃদু বা মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে জানিয়েছেন পরিচালক।

ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/ এমএইচ

আপডেট: বুধবার ৭ই ডিসেম্বর ২০১৬ দুপুর ০১:১৫:৪৭