আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম কমার কারণে তার প্রভাব পড়েছে দেশের বাজারেও। গত কয়েক দিনের ব্যবধানে আবার কমছে সোনার দাম। রবিবার (২০ নভেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) সোনার দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামীকাল সোমবার থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। বাজুসের কার্যনির্বাহী কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, দেশের বাজারে সোনার দাম ভরিপ্রতি সর্বোচ্চ ৯৯১ টাকা কমানো হচ্ছে। এখন প্রতি ভরি ২২ ক্যারেট সোনা (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) ৪৫ হাজার ৮৯৮ টাকা, ২১ ক্যারেট ৪৩ হাজার ৮৫৭ টাকা এবং ১৮ ক্যারেট ৩৭ হাজার ৯০৮ টাকা। এ ছাড়া সনাতন পদ্ধতির সোনার ভরি ২৫ হাজার ২০ টাকা।

প্রকাশিত : সোমবার ২১শে নভেম্বর ২০১৬ রাত ০৩:৪৪:৩২

‘ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ব্যবসায়িক অংশীদার। বাংলাদেশ মোট রফতানি করে ৩৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি, এর মধ্যে ১৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি রফতানি করে ইউরোপিয়ন ইউনিয়নে। ইউরোপিয়ন ইউনিয়ন বাংলাদেশকে এভ্রিথিংস বাট আর্মস (ইবিএ) অর্থাৎ অস্ত্র ছাড়া সকল পণ্য ডিউটি ফ্রি ও কোটা ফ্রি সুবিধা দিয়ে আসছে।’ অপ্রত্যাশিত রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর তৈরি পোশাক কারখানাগুলোর বিল্ডিং ও ফায়ার সেফটি, শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠা, কর্মবান্ধব পরিবেশ প্রতিষ্ঠায় সরকার এবং কারখানা মালিকদের গৃহীত পদক্ষেপে প্রতিনিধি দল সন্তুষ্ট বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী। ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট এর ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড কমিটির চেয়ারম্যান সাংবাদিকদের বলেন, ‘এলডিসিভুক্ত ৪৮টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি উন্নতি করেছে, বাংলাদেশের জনগণকে অভিনন্দন। বাংলাদেশের উন্নয়নে আমরা খুশি। ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন বাংলাদেশকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে, ভবিষ্যতে যৌথ আলোচনার মাধ্যমে আরও উন্নয়নে কাজ করা সম্ভব হবে। বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হলে বাণিজ্য ক্ষেত্রে জিএসপি প্লাস সুবিধা প্রদানে সহায়তা করতে, তবে সে ক্ষেত্রে ২৭টি কনভেনশন অনুস্মরণ করার প্রয়োজন হবে।’

প্রকাশিত : বৃহঃস্পতিবার ১৭ই নভেম্বর ২০১৬ বিকাল ০৫:৪৯:৪২

মংলা কাস্টম কমিশনারের প্রত্যাহার এবং সমস্যা সমাধানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণের দাবিতে সাতদিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন খুলনাঞ্চলের আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা। মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে খুলনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেয়া হয়। অবিলম্বে মংলা কাস্টমস কমিশনারকে প্রত্যাহার করা না হলে আগামী ১৬ নভেম্বরের পর থেকে কর্মবিরতি, মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি পেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, মংলা বন্দর ব্যবহারকারী সমন্বয় কমিটির মহাসচিব মো. সাইফুল ইসলাম। এতে মংলা বন্দরে নতুন কোন পণ্য চালান আমদানি হচ্ছে বলে উল্লেখ এবং মংলা কাস্টম হাউসে দৈনন্দিন কাজে বহুমুখি সমস্যার বর্ণনা দেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মংলা বন্দর ব্যবহারকারী সমন্বয় কমিটির সভাপতি সৈয়দ মোসতাহেদ আলী, খুলনা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি কাজি আমিনুল হক, সিএন্ডএফ এজেন্টস্ এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সুলতান হোসেন খান, বাংলাদেশ শিপিং এজেন্টস্ এ্যাসোসিয়েশনের ভাইস-চেয়ারম্যান ও মংলা বন্দর মাষ্টার ষ্টি

প্রকাশিত : মঙ্গলবার ৮ই নভেম্বর ২০১৬ রাত ০৮:৪৭:০৪